দেশ ছাড়া সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ঘোষণা করলেন পাকিস্তানের টিকটক স্টার জন্নত মির্জা। চিনা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তানও। আর সেই কারণেই টিকটক স্টার দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও মনে করছেন তাঁর অনুগামীরা।  

জন্নত মির্জা
জন্নত মির্জাই প্রথম পাক টিকটক স্টার সোশ্যাল মিডিয়ায় যাঁর অনুগামীর সংখ্যা ১০ মিলিয়নেও বেশি। কিন্তু তাঁর দেশ ছাড়ার সংবাদে তাঁর অনুগামীরা রীতিমত হতাশ হয়েছেন। মির্জা সম্ভবত জাপান চলে যেতে পারেন। তাঁর এক অনুগামী জিজ্ঞাসা করেছেন তিনি কেন দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার উত্তর মির্জা জানিয়েছেন, পাকিস্তান খুব সুন্দর একটি দেশ। কিন্তু সেই দেশের অনুগামীদের মানসিকতা ভালো নয়।  তবে টিকটক ব্যানের সমালোচনা করে রীতিমত ট্রোল হয়েছিলেন ২২ বছরের জন্নত মির্জা। তবে আগে তিনিও চাইতেন টিকটক বন্ধ করা হোক। তবে পুরোপুরি নয়। কিন্তু এখন তিনি জানতে পেরেছেন পুরোপুরি বন্ধ করা হচ্ছে টিকটক। আর তাই নিয়ে দেশ ছা়ড়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, টিকটক বন্ধ হলে অনেক মানুষই রোজগার হারাবে। 

টিকটক ব্যান
ভারতের মত পাকিস্তানও টিকটক অ্যাপটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। পাকিস্তানের টেলিযোগাযোগ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে এই ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মে অনৈতিক আর অশ্লীল বিষয়বস্তু শেয়ার করা হয়।যা নিয়ে সমাজের বেশ কয়েকটি স্তর থেকে আপত্তি জানান হয়েছে। আর সেই কারণেই অ্যাপটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছ। পাকিস্তানের আগে ভারত , মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আর অস্ট্রিলিয়াতেও কোপে পড়েছে টিকটক। 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Tiktok ban honay ka aik faida zarur huwa k mjhe tamaam Aasteen k saanpo ka pata lag gya. Thanks to PTA. 🌚✨

A post shared by Jannat Mirza (@jannatmirza_) on Oct 12, 2020 at 7:38am PDT