Asianet News BanglaAsianet News Bangla

'পাক দখলদারী শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে প্রতিরোধ', বিরাট আন্দোলনের ডাক গিলগিট-বালতিস্তানে

১৯৪৭ সালের ২২ অক্টোবর জম্মু-কাশ্মীরে হামলা চালিয়েছিল পাকিস্তান

ওই দিনটি থেকেই শুরু হবে প্রতিরোধ আন্দোলন

পাক দখলদারী শেষ না হওয়া অবধি চলবে সেই প্রতিরোধ

এমনই হবিরাট আন্দোলনের ডাক এল গিলগিট-বালতিস্তানে

Resistance to continue against Pakistan till it pulls out army from POK, says activist Sajjad Raja ALB
Author
Kolkata, First Published Oct 18, 2020, 1:33 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

১৯৪৭ সালের ২২ অক্টোবর জম্মু-কাশ্মীরে আক্রমণ করেছিল পাকিস্তান। পাক অধিকৃত কাশ্মীর বলে যে অংশটি এখন পরিচিত, ওই সময়ই সেই অংশের দখল নিয়েছিল পাক সেনা। সেই অবৈধ দখলদারির কথা স্মরণ করে ওই দিনটিকে এই বছর গিলগিট-বালতিস্তানে 'প্রতিরোধ দিবস' হিসাবে পালন করার আহ্বান জানালেন গিলগিট-বালতিস্তানের মানবাধিকার কর্মী সাজ্জাদ রাজা।

শনিবার এক টুইট করে রাজা জানিয়েছেন, ২২ অক্টোবর দিনটি তাঁরা প্রতিরোধ দিবস হিসাবে উদযাপন করবেন। পাকিস্তান ১৯৪৭ সালের ২২ অক্টোবর জম্মু ও কাশ্মীর আক্রমণ করেছিল এবং ভাগ করেছিল। পাকিস্তান তার রাষ্ট্র এবং সমস্ত নাগরিককে তাঁদের রাজ্য থেকে সরিয়ে নিতে বাধ্য হওয়ার আগে পর্যন্ত তাঁদের সেই প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি। আরও হলেন, পাকিস্তানি দখলদারির বিরুদ্ধে এবার না বলার সময় এসেছে।

ইউরোপিয়ান ফাউন্ডেশন ফর সাউথ এশিয়ান স্টাডিজ বা ইএফএসএএস সম্প্রতি ১৯৪৭ সালের ২২ অক্টোবর দিনটিকে জম্মু ও কাশ্মীরের ইতিহাসের 'অন্ধকারতম দিন' হিসাবে অভিহিত করেছে। এই অঞ্চলটি দখল করার জন্য ওই দিনই পাকিস্তান 'অপারেশন গুলমার্গ' শুরু করেছিল। ওই বর্বর অভিযানে ৩৫,০০০ থেকে ৪০,০০০ বাসিন্দা মারা গিয়েছিল বলে জানিয়েছে এই ইউরোপীয় থিংক ট্যাঙ্ক। আর ওই ঘটনই জম্মু ও কাশ্মীরের ভবিষ্যতে 'মারাত্মক ক্ষতচিহ্ন' রেখে গিয়েছে। উপজাতিদের দিয়ে আক্রমণ করানোর পরিকল্পনাকারী এবং সেই পরিকল্পনা যারা কার্যকার করেছিল, তাদের কাশ্মীরি জনগণের সবচেয়ে বড় শত্রু বলেছে তার।

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios