পাকিস্তান সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটির তৎপরতায় রক্ষা পেল ভারতীয় বিমান। বৃহস্পতিবার ভারতীয় বিমানটি জয়পুর থেকে ওমানের রাজধানী মাসকাটের দিকে উড়ে যাচ্ছিল। বিমানে প্রায় ১৫০ জন যাত্রী ছিলেন। পাকিস্তানের সাহায্যের জেরে বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেলেন যাত্রীরা। 

বিমানটি করাচির ওপর দিয়ে জয়পুর থেকে ওমানের রাজধানা মাসকাটে যাচ্ছিল।  কিন্তু সেদিন পাকিস্তানের দক্ষিণ সিন্ধু প্রদেশে প্রাকৃতিক পরিবেশ ভালো ছিল না।  ঘন ঘন বজ্র বিদ্যুৎ হচ্ছিল। করাচির আকাশ সীমায় বিমানটি বজ্র বিদ্যুতের মুখে পড়ে। যার জেরে বিমানটি ৩৬,০০০ ফুট উচ্চতা থেকে ৩৪,০০০ ফুট উচ্চতায় নেমে আসে। এরপর পাইলট নিকটবর্তী বিমানবন্দরে জরুরি প্রটোকল মেনে বিপদ বার্তা পাঠায়। পাকিস্তানের বিমান পরিবহণ নিয়ন্ত্রক পাইলটের আহ্বানে সাড়া দিয়ে পাক আকাশসীমা দিয়ে বাকি পথের যাত্রার নির্দেশ দেয় বলে জানা গিয়েছে। 

বালাকোটের বিমান হামলার পর পাকিস্তান তাদের আকাশ সীমা ভারতের জন্য বন্ধ করে দেয়। ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ভারত পাক আকাশসীমা ব্যবহার করতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সৌদি সফরে পাক আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে আবদেন করে ভারত সরকার। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়। প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর পাকিস্তান তাদের আকাশপথ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় বলে জানা গিয়েছে।