দুর্গাপুজো মানেই মাতোয়ারা বাঙালি। শ্রেষ্ঠ উৎসব বলে কথা। সারা বছর এই কয়েকটা দিনের জন্য থাকতে হয় অপেক্ষা করে। তাই এই কয়েকটা ছুটির দিন কি ঘরে বসে কাটিয়ে দেওয়া যায়। যে ভাবেই হোক, প্যান্ডেলে ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখাটা কিছুতেই হাতছাড়া করতে করতে চান না কোনও মতেই। আর পুজোর আনন্দে মেতে বাইরে ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখা শেষে বাড়ি ফিরতেই চোখে পড়ে যায়, রোদে ঘুরে ঘুরে ত্বকের অবস্থা শোচনীয়। তাহলে কি এমন অবস্থায় একদিনেই ঠাকুর দেখায় ইতি টানতে হবে। একদমই নয়, মন ভরে ঠাকুর দেখে নিন, নাহলে আবারও অপেক্ষা এক বছরের। শুধু নিমেষেই ত্বকের জেল্লা ফিরিয়ে আনতে জেনে নিন কি করতে হবে।

আরও পড়ুন- অষ্টমীর অঞ্জলিতে মেয়েদের শাড়ি, তবে কেন পিছিয়ে থাকবে ছেলেরা, জেনে নিন ধুতির খুটিনাটি

প্রথমেই ত্বকের আদ্রতা এবং ক্লান্ত ত্বককে সতেজ করতে ব্যবহার করুন চন্দন এবং  গোলাপ জলের প্যাক। দু চামচ চন্দন পাউডারের সঙ্গে এক চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রেখে দিন। শুকিয়ে এলে ঠাণ্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এইভাবেই সপ্তাহে অন্তত দুবার ব্যবহার করুন এই ফেসপ্যাক। 

আরও পড়ুন- ট্যাটুকে রাখুন টাটকা ,সামান্য কিছু নিয়ম মেনে

ট্যান রিমুভের জন্য ব্যবহার করতে পারেন চন্দন পাউডারের সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে ফেলুন। এরপর ত্বকের যেখানে যাখানে ট্যান পড়েছে, ঘাড়ে, হাতে, মুখে এই পেস্ট লাগিয়ে শুকিয়ে নিন। পরিষ্কার জলে ধুয়ে নিন। এই পেস্ট একবার ব্যবহারের পরেই তফাৎটা বুঝতে পারবেন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে  চন্দন পাউডারের সঙ্গে কাঁচা দুধ মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে লাগিয়ে নিন। হালকা শুকিয়ে এলে ফেসওয়াস ব্যবহার করার মত করে হালকা হাতে ঘষে নিন। এরপর ঈষদউষ্ণু গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আর ফল পান হাতেনাতে।