টোকিও অলিম্পিক শুরু হতে বাকি নেই ৫০ দিনও। জোর কদমে প্রস্তুতি চলছে ভারতীয় অ্যাথলিটদের। ভারতীয় দলের প্রস্তুতি নিয়ে খোঁজ নিয়েছেন স্বয়ং প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে এবার অলিম্পিক শুরুর আগেই জোর ধাক্কা খেল ভারতীয় শিবির। টোকিও গামী এক কুস্তিগির ধরা পড়েছেন ডোপ পরীক্ষায়। ডোপ পরীক্ষায় ধরা পড়ার নিয়ম মেনে প্রকাশ করা হয়নি ওই কুস্তিগিরের নাম। তবে সাময়িকভাবে নির্বাসিত করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

ডোপিং নিয়ে বরাবরই খুব কড়া নাডা। সেই নিয়ম মেনেই সকল কুস্তিগিরদের ডোপিং পরীক্ষা করা হয়। এবার টোকিও অলিম্পিকে ভারত থেকে মোট ৮ জন কুস্তিগির অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে। তার মধ্যে ৪ জন ছেলে ও ৪ জন মেয়ে। ডোপ পরীক্ষায় ধরা পড়ার কারণে ওই কুস্তিগির মনে হয় আর টোকিও অলিম্পিকে যেতে পারবেন না। ‘বি’ নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট এখনও পাওয়া যায়নি বলে কুস্তিগীরের পরিচয় জানানো হয়নি।  দোষ প্রমাণ হলে তখন বড় শাস্তির কবলে পড়তে হবে অভিযুক্ত কুস্তিগীরকে।

অলিম্পিকের আগে ভারতীয় কুস্তিগিরের ডোপিং টেস্টে পাস করতে না পারার অভিযোগ নতুন নয়। ২০১৬ রিও অলিম্পিকের আগে কুস্তিগির  নরসিং যাদব ডোপ পরীক্ষায় ধরা পড়েছিলেন। আর এবার ধরা পড়লেম আরও এক কুস্তিগির। অলিম্পিকে শেষ তিন বারে কুস্তি বিভাগে পদক এসেছে ভারতের ঝুলিতে। ফলে কুস্তিগিরদের ঘিরে আশা অনেক বেশি দেশের। কিন্তু অলিম্পিক শুরুর আগে এমন খবরে কিছুটা হলেও হতাশ ভারতীয় ক্রীড়া প্রেমিরা।