বিশ্বকাপ সেমি ফাইনালে হারের ধাক্কা কাটিয়ে জয়ে ফিরলেন বিরাট কোহলিরা। যদিও, মাত্র ৯৬ রান তাড়া করতে গিয়েই ফিরে আসছিল বিশ্বকাপ সেমি ফাইনালে তীরে এসে তরী ডোবার স্মৃতি। তবে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে না পারলেও এ দিন দলকে শেষ পর্যন্ত জয়ের লক্ষ্য পৌঁছে দেন রবীন্দ্র জাডেজা। 

আমেরিকার ফ্লোরিডায় এ দিন টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বিরাট। ভারতের হয়ে স্বপ্নের অভিষেক হয় পেসার নভদীপ সাইনির। ভারতের হয়ে তিন উইকেট নেন তরুণ পেসার। ম্যাচের সেরাও হন তিনি। ভুবনেশ্বর কুমারও নেন দু'টি উইকেট। মাত্র ৯৫ রানেই অল আউট হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তার মধ্যে একাই ৪৯ রান করেন কায়রন পোলার্ড। তা না হলে আরও বড় লজ্জা অপেক্ষা করছিল সুনীল নারিনদের জন্য। 

ভারতীয় সমর্থকরা ভেবেছিলেন হয়তো সহজেই লক্ষ্যে পৌঁছে যাবেন বিরাট কোহলিরা। কিন্তু বল হাতে শুরু থেকেই পাল্টা কাজটা কঠিন করে দেন দেন কোটরেল, পল, নারিনরা। চোট সারিয়ে প্রত্যাবর্তন করলেও দ্রুত ফেরেন শিখর ধাওয়ান। রোহিত ২৪ রান করে ফেরেন। কিন্তু সুযোগ পেয়েও ফের ব্যর্থ পন্থ। প্রথম বলেই দায়িত্বজ্ঞানহীন শট খেলে সুনীল নারিনকে উইকেট দেন তিনি। মণীশ পাণ্ডে এবং বিরাট কোহলি দু' জনেই ব্যক্তিগত ১৯ রানের মাথায় ফেরেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য অঘটন ঘটতে দেননি ক্রুণাল পান্ডিয়া, জাদেজারা।  ক্রুণাল ১২ রান করে ফিরলেও ছয় মেরে দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেন ওয়াশিংটন সুন্দর। জাদেজা নট আউট থাকেন ৯ রানে। চার উইকেট হাতে রেখে জিতে যান কোহলিরা। রবিবার ফ্লোরিডার এই মাঠেই ফের মুখোমুখি হবে দুই দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ১৪ রান দিয়ে দুই উইকেট নেন নারিন।

ফ্লোরিডার বাইশ গজ এ দিন একেবারেই ধীর গতির ছিল। যে কারণে শট খেলতে গিয়ে সমস্যায় পড়েছেন দু' দলের ব্যাটসম্যানরাই। তা সত্ত্বেও মাত্র ৯৬ তাড়া করতে গিয়ে যেভাবে রক্তচাপ বাড়ালো ভারতীয় ব্যাটিং, তাতে বিরাট- শাস্ত্রী জুটির চিন্তা বাড়বেই।