নতুন বলে ব্যাট হাতে ব্যর্থ ভারতীয় দলের মিডল অর্ডার ও লোয়ার অর্ডার। কোহলি ফিরতেই শেষ হয়ে গেল ভারতীয় দলের ইনিংস। ব্যাট হাতে শনিবার খেলার দ্বিতীয় দিনে অনবদ্য শতরান করেন কোহলি। এই নিয়ে কোহলি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭০টি শতরান সেরে ফেললেন। তবে কোহলি ছাড়া শনিবার ভারতের হয়ে সেভাবে ব্যাট হাতে নজর কাড়তে পারলেন না ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। বাংলাদেশের থেকে এই মুহূর্তে ২৪১ রানে এগিয়ে থেকে ইনিংস ঘোষণা করল ভারতীয় দল। ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৪৭ রানে শেষ হল ভারতের ইনিংস। সেই সঙ্গে দ্বিতীয় দিনেই ঐতিহাসিক টেস্ট শেষ করে দেওয়ার জল্পনা তৈরি করল কোহলিরা। বাংলাদেশের ব্যাটিং এই মুহূর্তে খুব নরবরে। তাই জয়ের ঐতিহাসিক টেস্ট জয়ের গন্ধ ভারতীয় ক্রিকেট মহলে।


এদিন মধ্যাহ্নভোজের সময় ২৮৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়েছিলল ভারতীয় দল। তারপর বিরতির পর খেলা শুরু হলে প্রথম ওভারেই ফিরে যান ভারতীয় অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা। ১২ রান করে আবু জায়েদের বলে ফিরে যান তিনি। তারপর মাঠে নামেন বঙ্গ তনয় ঋদ্ধিমান সাহা। এদিন জাদেজার পরে নামলেও বিরাটের পাশাপাশি দলকে সাপোর্ট দিতে শুরু করেন ঋদ্ধি। তবে তারই মাঝে ৮০ ওভারের মাথায় নতুন বল নেওয়ার পরেই ৮০ ওভার ৩ বলের মাথায় সাজঘরে ফেরেন বিরাট কোহলি। ৩০৮ রানে ৬ উইকেট হারায় ভারত। সেই সঙ্গে দ্বিতীয় দিনে অলআউট হয়ে যাবে ভারতীয় দল সেটাও কিছুটা হলে নিশ্চিত হয়ে যায়।

তবে অন্যান্য দিন ভালো ব্যাট করলেও, এদিন মাত্র ৯ রানে ফিরে যান রবিচন্দ্রন অশ্বিন। আল আমিনের বলে এলবিডব্লু হন তিনি। একই সঙ্গে মাঠে ব্যাট হাতে নেমেই ফিরে আউট হয়ে ফিরে যান ভারতীয় পেসার উমেশ যাদবও। শেষ মুহূর্তে দলের হয়ে কিছুটা রান এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লড়াই চালান বাংলার দুই ক্রিকেটার ঋদ্ধিমান সাহা ও মহম্মদ সামি। সেই সুবাদে ১৩ জন বাঙালিকে এক সাথে দেখা গেল ইডেনে। সেই সঙ্গে ২৪১ রানে এগিয়ে থেকে ইনিংস ঘোষণা করে দিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট। ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৪৭ রানে ইনিংস ঘোষণা করলেন কোহলি। ব্যাট হাতে ১৭ ও ১০ রান করে অপরাজিত থাকলেন ঋদ্ধি ও সামি। তবে একদিনে চা বিরতির আগ পর্যন্ত ভারতের ৭ উইকেট নিল বাংলাদেশের বোলাররা। পিঙ্ক বল হাতে ভালো বোলিং করলেন ইবাদত হোসেনরা। বল হাতে তিন উইকেট নিলেন ইবাদত। দুটি করে উইকেট নিলেন আল আমিন ও আবু জায়েদ। একই সঙ্গে ১টি উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম।