ভারতীয় ক্রিকেট টিম হেরে যাওয়ার পরে হতাশ ভারতবাসী। প্রতিটি মানুষ তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিভিন্ন ভাবে। রাস্তায় পা রাখলেই ক্রিকেটপ্রেমিদের মুখে শোনা গিয়েছে তাদের দুঃখের কথা।  
ভারতীয় ক্রিকেট টিমের এই পারফরমেন্সে হতাশ হয়েছিল সকলেই। শুধু সাধারণ মানুষই যে হতাশ হয়েছিল তা নয় হতাশ ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরাও। ধোনির চোখেও জল দেখা গিয়েছিল সেমিফাইনালে আউট হওয়ার পর।
বিচ্ছিরিভাবে হেরে গিয়ে হতাশাগ্রস্ত ভারতীয় প্লেয়ারদের ছবিটা নজর এড়ায়নি সুর সাম্রাজ্ঞীরও। মুম্বইয়ে নিজের ফ্ল্যাটে বসে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সেমিফাইনাল নাকি দেখছিলেন লতা মঙ্গেশকর। বিশ্বকাপে বরাবর দুরন্ত খেলে মাত্র ৪৫ মিনিটের খারাপ খেলায় কীভাবে ভারত কাপ জয়ের লড়াই থেকে ছিটকে গিয়েছে তাও ভালো মতোই জানেন লতা। হতাশায় ভারাক্রান্ত ভারতীয় ক্রিকেটারদের মুখ দেখে আর স্থীর থাকতে পারেননি তিনি। ভারতীয় দলের পাশে দাঁড়িয়ে টুইটারে বার্তাও দিয়েছেন। টুইটে তিনি লেখেন-'আমরা জিততে না-পারলেও হেরে যাইনি। ক্রিকেটের জন্য গুলজার সাহেবের লেখা এই গান আমি আমাদের দলকে উত্‍‌সর্গ করছি।' তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের উদ্দেশ্যে 'আকাশ কে উস পর ভি' গানটি উৎসর্গ  করেন। দেশের ক্রিকেট দলের প্রতি লতা মঙ্গেশকরের কতটা শ্রদ্ধা তা এই টুইট থেকেই বোঝা যায়।  
 শুধু ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রতি এই বার্তাই ছাড়াও তিনি আরও একটি টুইট করেন  ধোনির  উদ্দেশ্যেও। সেমিফাইনালের পরই কানে আসছিল ধোনির অবসর নেওয়ার কথা।  আর তার পরিপ্রেক্ষিতে আরও একটি টুইট করেন লতা। যেখানে তিনি এখন ধোনিকে অবসর নিতে বারণ করেছেন। তিনি এও বলেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের ধোনির প্রয়োজনিয়তার কথা। লতার টুইটারে জানানো হয়েছে-'  'নমস্কার এমএস ধোনিজি, শুনতে পাচ্ছি আপনি অবসরের কথা ভাবছেন। দয়া করে এমনটা ভাববেন না। আপনাকে দেশের প্রয়োজন। আর এটা আমারও অনুরোধ যে আপনি অবসরের ভাবনাও মনে আনবেন না।' 
লতা মঙ্গেশকরের ক্রিকেটের প্রতি প্রেম এর আগে প্রকাশ পেয়েছিল শচীনের খেলার সময়েও। এই বয়সে এসেও সুরসম্রাজ্ঞির এই ক্রিকেট প্রেম যা প্রমাণ করেছে তিনি ক্রিকেটের দৈনিক দর্শক।