এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে নিজের প্রথম সোনা জিতলেন কুস্তিগীর রবি কুমার। তিনি ফাইনালে হারালেন তাজাকিস্তানের কুস্তিগীর হিকমাতুল্ল ভৈহ্যব-কে। রবি কুমারের সোনা জয়ের দিনে অবশ্য রুপো নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো বজরং পুনিয়াকে। ফাইনালে তাকে হারতে হয় জাপানি প্রতিপক্ষ তাকুটা ওটোগুরো-র কাছে। দিল্লির কেডি যাদব রেসলিং হলে ম্যাচটি আয়োজিত হয়েছিল। 

৫৭ কেজি বিভাগের ফাইনালে একপেশে ভাবে ভৈহ্যবকে হারালেন রবি। ম্যাচের ফল রবির পক্ষে ১০-০। সারা ম্যাচে একবারও মাথা তুলে দাঁড়াতে দেননি তাজাকি প্রতিপক্ষকে। টুর্নামেন্টের শুরু থেকে সোনা জয় অবধি রবি কুমারের দৌড় কে রূপকথার গল্পের সাথে তুলনা করা যেতে পারে। 

প্রথম ম্যাচেই তিনি বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জাপানি প্রতিপক্ষ ইউকি তাকাহাসিকে উড়িয়ে দিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে ২ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন নুরইসলাম সানায়েভকে ৭-২ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে হিকমাতুল্ল ভৈহ্যব-এর মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। 

৬৫ কেজি বিভাগের ফাইনালে উঠেছিলেন আরও এক ভারতীয়, বজরং পুনিয়া। ফাইনালে তার মুখোমুখি হয়েছিল ২০১৮ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে তাকে হারানো প্রতিপক্ষ তাকুটা ওটোগুরো। কিন্তু সেই বদলা নিতে ব্যর্থ হন পুনিয়া। তাকে হারতে হয় ১০-২ ফলাফলে। ফলে রুপো নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাকে। এর আগে তার বিভাগে পরপর তিনজন প্রতিপক্ষকে একপেশে ভাবে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে পৌঁছেছিলেন তিনি। তারপরেও সোনা না আসায় হতাশ তিনি। 

আরেক ভারতীয় কুস্তিগীর গৌরব বালিয়ান ৭৯ কেজি বিভাগে প্রথমবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে নেমে ফাইনালে উঠেছিলেন। কিন্তু কিরঘিজস্তানের প্রতিপক্ষ আর্সলান বুধাপব-এর কাছে ৭-৫ ফলাফলে হেরে রুপোতেই সন্তুষ্ট হতে হয় তাকে। ৯৭ কেজি বিভাগের ফাইনালে ভারতীয় সত্যবর্ত কাদিয়ানের-কেও ইরানের মোস্তফা মোহাম্মদসইফি গোলেজি-কাছে ১০-০ ফলে হেরে রুপোতে আটকে থাকতে হয়।