পাশেই প্রকৃতির রুদ্র রূপ। ভয়ঙ্কর গর্জন আগ্নেয়গিরির। অবিরাম ধারায় বেরিয়া আসসছে লাভার স্রোত। আগ্নেয়গিরি ভিতর বিস্ফোরণে কখনও কখনও লাফিয়ে লাফিয়ে উঠছে লাল টকটকে লাভা। আগুনের লেলিহান শিখা দেখলে যে কেউ ভয় পেয়ে যাবেন। সাধারণ যে কেউ সেই জায়গার আশেপাশে দাঁড়াতেও সাহস দেখাবেন না। যে কোনও মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে বড়সড় দুর্ঘটনা। এমন পরিস্থিতিতে কয়েক জন বন্ধু চুটিয়ে খেলছেন ভলবিল।

 

 

কী অবাক হলেন। সোশ্য়াল মিডিয়ায় সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে এমনই একটি ভিডিও। যেখানে জ্বলন্ত আগ্নেয় গিরির সামনে ভলিবল খেলছেন কয়েক জন। সম্মুখ বিপদকে যেন হেলায় উড়িয়ে, তাদের ভাবনা অনেকটা যেন 'জাস্ট চিল'। ঘটনাটি আইসল্যান্ডের। তবে আগ্নেয়গিরি দেখে যে ওই যুবকরা অভ্যস্ত এমনটা ভাবলে ভুল করবেন। গত ২০ মার্চ প্রায় ৮০০ বছরের ঘুম থেকে জেগে উঠেছে এই আগ্নেয়গিরি। নাম ফাগরাডালসফল। তবে এভাবেই মত্যুকে উপেক্ষা করেই নিজেদের তালে মেতে রয়েছেন তারা।

 

 

এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে। অনেকে শিউড়ে উঠেছে ভিডিওটি দেখে। তবে জানা গিয়েছে, আগ্নেয়গিরিটি জীবন্ত হওয়ার আভাস আগেই পাওয়া গিয়েছিল। তবে খুব একটা বেশি ছাই বা ধোয়া বেরোচ্ছে না। তাই বিশেষজ্ঞদের মত অনুযায়ী অন্যান্য জায়গার থেকে ঝুকি একটু কম এই আগ্নেয়গিরির ক্ষেত্রেই। সেই কারণেই তার থেকে একটি দূরে মানুষের আনাগোনা সম্ভব হচ্ছে।