দিল্লির ছত্রাশল স্টেডিয়ামের বাইরে কুস্তিগির সাগর রানা হত্যার ঘটনায় সমস্যা আরও বাড়তে পারে অলিম্পিক পদক জয়ী কুস্তিগীর সুশীল কুমার সহ অন্যান্যদের। ঘটনায় ইতিমধ্যেই সুশীল কুমার সহ ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। এই ঘটনায় খোঁজ চলছে আরও ৩ জনের। এমনিতেই সাগর রানার মৃত্যুর পর গা ঢাকা দিয়ে নিজের সমস্যা অনেকটাই বাড়িয়েছে সুশীল কুমার। গ্রেফতারির পর সামনে এসেছে সাগর রানাকে সুশীলের প্রহার করার ভিডিও। 

ঘটনায় কঠিন সাজার সম্মুখীন হতে পারে সুশীল কুমার। কারণ সেই পথেই এগোতে চলছে তদন্তকারীরা। সুশীল কুমারকে মহারাষ্ট্র কন্ট্রোল অফ অর্গানাইজড ক্রাইম অ্যাক্ট অর্থাৎ মকোকা আইনে অভিযুক্ত করার কথা ভাবছে পুলিস। এই ধারা প্রয়োগ করা হল অভিযুক্তদের বিপদ অনেকটাই বাড়বে। কারণ সংগঠিত গুরুতর অপরাধের ক্ষেত্রে এই ধারা দিয়ে থাকে পুলিস। এই ধারায় অভিযুক্ত জামিন পাওয়া কঠিন হওয়ার পাশাপাশি বিচারে আজীবন কারাদণ্ডও হতে পারে অভিযুক্তদের।

এছাড়াও মকোকা ধারা দিলে ঘটনার তদন্তের জন্য অনেকটা সময় পাবে পুলিস আধিকারিকরা। আদালত মঞ্জুর করলে এই ধারায় চার্জশিট পেশ করতে পুলিস ৬ মাস পর্যন্ত সময় নিতে পারে। ইতিমধ্যেই ঘটনায় রোহিনী আদালত ৬ অভিযুক্তকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছে। সুশীল এবং তাঁর সঙ্গী অজয় কুমার অবশ্য রয়েছে পুলিস হেফাজতেই। সুশীল কুমারের পুলিস হেফাজতের মেয়াদ ৬ দিন বাড়ানো হয়েছে। মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকেও অভিযুক্ততদের কঠোর শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।