আমেরিকা ভিত্তিক ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (এমআইটি)-এর পর্যালোচনাতে আরোগ্য সেতু অ্যাপকে ৫ এর মধ্যে ২ রেটিং দেওয়া হয়েছে। এমআইটি অন্য ২৫ টি দেশে কোভিড অ্যাপ্লিকেশনের সঙ্গে এটির তুলনা করেছে। তাতে আরোগ্য সেতুর-র স্বচ্ছতা এবং ব্যবহারের মান পূরণ করতে পারেনি এই অ্যাপ। এমআইটি বিশ্বব্যাপী কন্ট্রাক্ট ট্রেসিং অ্যাপের জন্য রেটিং প্রকাশ করেছে। এর জন্য, প্রয়োগ, বাস্তবায়ন, ডেটা হ্যান্ডলিং, গোপনীয়তা এবং স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পর্কিত পদ্ধতিগুলির উপর ভিত্তি করেই এই বিবেচনা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন- ভাইরাস ও সংক্রমণজনিত রোগ প্রতিরোধে, প্রতিদিন সকালে খালি পেটে মেনে চলুন এই নিয়ম

সব অ্যাপ্লিকেশান মূল্যায়ন করা হয় ৫ টি প্রশ্ন উপর ভিত্তি করে। এই প্রশ্নগুলি অ্যাপ্লিকেশনটির সঙ্গে উপযুক্ত হওয়া প্রয়োজন, ডেটা ব্যবহার, সময় মতো সংগৃহীত ডেটা মুছে ফেলা, এই বিষয়গুলি থাকা প্রয়োজন। এমআইটি বিশেষজ্ঞদের মতে, যে দুটি প্যারামিটারের ভিত্তিতে ভারতের সরকারের অনুমোদিত আরোগ্য সেতু নির্ভুল বলে প্রমাণিত হয়েছে তা হ'ল সময়ে সময়ে ব্যবহারকারীদের ডেটা মুছে ফেলা এবং কেবলমাত্র দরকারী ডেটার মাপদণ্ড সংগ্রহ। আরোগ্য় সেতু ব্যবহার, ডেটা ব্যবহারের সীমাবদ্ধতা এবং স্বচ্ছ মানদণ্ডে স্কোর করতে ব্যর্থ হয়েছে। এই কারণে এটি ৫ এর মধ্যে ২ রেটিং পেয়েছে।

আরও পড়ুন- ডিজিটাল কার্ড ছাড়াই এবার মিলবে রেশন, বড় সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

যে সমস্ত দেশের কোভিড -১৯ অ্যাপ রেটিং ৫ এর মধ্যে ৫ পেয়েছে সেগুলির মধ্যে রয়েছে সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, নরওয়ে, ইজরায়েল, চেক রিপাবলিক, আইসল্যান্ড এবং অস্ট্রিয়া। চিনের অ্যাপ্লিকেশন ৫টি মানদণ্ডের কোনওটিতেই স্কোর করতে পারেনি। অন্যদিকে ফ্রান্স, আয়ারল্যান্ড এবং ইরান মাত্র একটি মানদণ্ডে স্কোর করতে সক্ষম হয়েছে। বর্তমানে ভারতে বর্তমানে কোভিড -১৯ অ্যাপ অ্যাপ্লিকেশনটির প্রায় ১০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে। যদিও আরোগ্য সেতু গুগলের প্লে স্টোরে ৫ এর মধ্যে ৪.৫ রেটিং এবং অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরটিতে ৫ এর মধ্যে ৪.২ রেটিং পেয়েছে। 

ভারত সরকার অনুমোদিত অ্যাপ্লিকেশনটি করোনভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এবং ঝুঁকি নির্ধারণে সহায়তা করে। এটি অ্যান্ড্রয়েড এবং আইফোন উভয় স্মার্টফোনেই ডাউনলোড করা যায়। এই বিশেষ অ্যাপটি কাছাকাছি উপস্থিত করোনা আক্রান্তদের সম্পর্কে অনুসন্ধানে সহায়তা করে। এটি আপনার মোবাইলের ব্লুটুথ, অথবা মোবাইল নম্বরের সাহায্যে ব্যবহার করা যায়।