করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে বেশিরভাগ অফিসই কর্মীদের ওয়ার্ক ফ্রম হোম-এর নির্দেশ দিয়েছে। মহামারি রুখতেই এই প্রয়াস নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই কলকাতা সহ গোটা দেশে চালু হয়েছে ওয়ার্ক ফ্রম হোম। একটানা লকডাউনে সকলের অবস্থাই নাজেহাল । যারা বাড়িতে বসে ঘরের কাজ করছেন তাদের এক সমস্যা আবার যারা বাড়িতে বসে অফিসের কাজ করছেন তাদের অন্য সমস্যা। সম্প্রতি মহামারি করোনা রুখতে  ২০২১ সালের জুলাই অবধি ওয়ার্ক ফ্রম হোম করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে ফেসবুক।

আরও পড়ুন-লকডাউনে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ দিচ্ছে এই সংকারি সংস্থা, রয়েছে আকর্ষণীয় সুযোগ...

নিজের কর্মীদের এবার অভিনব উদ্যোগ নিল ফেসবুক। ওয়ার্ক ফ্রম হোম -এ এবার ১০০০ ডলার মুদ্রা দিচ্ছে ফেসবুক  যা কিনা ভারতীয় মুদ্রায়  ৭৫ হাজার টাকার থেকেও সামান্য বেশি। মহামারীর কারণেই  বাড়িতে বসেই ওয়ার্ক ফ্রম হোম পদ্ধতিতে  কাজ করছেন ফেসবুক কর্মীরা। এবার কর্মীদের কথা ভেবেই তাদের দেওয়া হচ্ছে এই ১০০০ ডলার। যাতে বাড়িতে বসেই অফিসের যাবতীয় জিনিসপত্র কিনতে পারেন,তার জন্যই এই বিশেষ সুবিধা।এছাড়াও সম্প্রতি ফেসবুক অন্য যে টেকনোলজি সংস্থাগুলিতে যোগ দিয়েছে, তাদের ক্ষেত্রেও এই একই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন-লক্ষ্মীবারে ৫৫ হাজার ছাড়িয়ে গেল সোনার দাম, রেকর্ড হারে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে রূপোও...

জুলাইয়ের শেষের দিকে গুগল জানিয়ে দিয়েছিল, এই মহামারিতে  যাদের অফিসে আসার একান্ত প্রয়োজন নেই তারা ২০২১ এর জুলাই পর্যন্ত এই সুবিধা নিতে পারবেন।  অন্যদিকে টুইটারও অনির্দিষ্ট কালের জন্য কিছু কর্মীকে ওয়ার্ক ফ্রম হোমের সুবিধা দিয়েছে। ফেসবুকের এই উদ্যোগ সকলেই যে উপকৃত হবেন, তা বেশ ভালই বোঝা যাচ্ছে। নিজেদের বাড়িতে বসে কর্মীরা যাতে অফিসের কাজ করতে পারে তাই  ১০০ ডলার করে কর্মীদের দেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সরকারি নির্দেশ পেলে তারা আবারও অফিসগুলিতে  কিছু সংখ্যক লোক নিয়ে কাজ শুরু করবে। তবে করোনার প্রকোপ  যে হারে বাড়ছে তাতে বছর শেষের আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অফিস চালু হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কম।