গত মাসে নাসা আর্টেমিস এক্সপ্লোরেশন প্রোগ্রাম সম্পর্কে একটি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেছে। তাতে জানা গিয়েছে ২০২৪ সালের মধ্যে পরবর্তী চন্দ্রাভিযান সম্পন্ন করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এই প্রথম কোনও মহিলা মহাকাশচারী যাবেন চাঁদের মাটিতে। শুধু তাই নয় মহিলা মহাকাশচারীর চাঁদে যাওয়ার পাশাপাশি আরও একটি ঘোষণা করেছে নাসা। তা হল চাঁদের মাটিতে মিলবে 4G নেটওয়ার্ক।

আরও পড়ুন- অপেক্ষার অবসান, বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা, ছোট 5G স্মার্টফোন বাজারে আনল Apple

শুনতে অবাক লাগলেও এ কথা সত্যি।  ১৫ অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে একথা ঘোষণা করেছে নাসা। এই বিষয়ে বেল ল্যাব বেশ কিছু ট্যুইট করেছে ইতিমধ্যেই। চাঁদের মাটিতে 4G নেটওয়ার্ক বসানোর ব্যাপারে ন্যাশনাল এয়ারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছে Nokia। জানা গিয়েছে, এই প্রকল্পের জন্য খরচ হবে ৩৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, তার মধ্যে ১৪.১ মিলিয়ন খরচ বহন করবে নাসা।

 

 

নাসা-র স্পেস টেকনোলজি মিশন এর দায়িত্বে থাকা জিম রয়টার এই বিষয়ে জানিয়েছেন, এই প্রযুক্তির ফলে এরপর থেকে মহাকাশচারীদের মধ্যে যোগাযোগ রাখা আরও সহজ হয়ে উঠবে। এছাড়া চাঁদের মাটিতে মানুষের বসবাস আরও একটু সহজ হয়ে উঠবে। শুধু চাঁদে 4G নেটওয়ার্ক নয় এর মধ্যেই এস্টি লডার নামে এক মার্কিন  প্রসাধনী সংস্থা  নাসার সাহায্যে এক বিউটি প্রোডাক্ট পাঠিয়েছে মহাকাশে। মহাকাশচারীরাই এই প্রোডাক্ট ব্যবহার করে তাঁদের অভিজ্ঞতার ভিডিও শেয়ার করবেন বলে জানা গিয়েছে।