মোবাইলের বাজারে বেশ জনপ্রিয় এই সংস্থার ফোন। এই সংস্থার একের পর এক স্মার্টফোন ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে গ্রাহকদের মধ্যে। স্টাইলিশ লুক-সহ উন্নতমানের ফিচার এই ফোন জনপ্রিয় হওয়ার অন্যতম কারণ। গ্যালাক্সি সিরিজের আরও একটি ফোন মোবাইলের বাজারে নিয়ে এল স্যামসাং। স্যামসাং চলতি বছরে ভারতে বেশ কয়েকটি গ্যালাক্সি এম সিরিজের স্মার্টফোন বাজারে নিয়েছে। গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এই ব্যাপ্তিটি আরও কিছুটা বিস্তৃত হবে। ইন্টারনেটে এখনই এটি নিয়ে প্রচুর জল্পনা চলছে। তাদের কিছু সম্ভবত সত্য হতে পারে।  

ফাঁস হওয়া তথ্য অনুসারে, এই গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান একটি স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০ চিপসেট এবং ৭০০০ এমএএইচ বড় ব্যাটারি থাকতে পারে। যদি তা হয় তবে এটি স্মার্টফোনের সর্বকালের বৃহত্তম ব্যাটারি হবে। ফাঁশ হওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান একটি ৬৪-মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা রয়েছে এবং  ৬.৬৭ ইঞ্চি ফ্ল্যাট পুরো এইচডি প্লাস রেজোলিউশন সহ ডিসপ্লে রয়েছে।

গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান একটি ৬৪-মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরা ছাড়াও এবং একটি ১২-মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এই সেন্সর রয়েছে। যদিও সঠিক ক্যামেরার বৈশিষ্ট্যগুলি নিশ্চিত করা যায়নি, এটি ধারণা করা হচ্ছে যে স্মার্টফোনটিতে চারটি রিয়ার ক্যামেরা থাকবে এবং স্যামসাং সিঙ্গল টেক ক্যামেরা বৈশিষ্ট্য থাকবে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিঙ্গল টেক ক্যামেরা বৈশিষ্ট্যটি মূলত ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসের জন্য সংরক্ষিত, তবে গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান-এ এই বৈশিষ্ট্যটি থাকতে পারে। 

স্যামসাং  নিশ্চিত করেছে যে গ্যালাক্সি এম থার্টিওয়ান একটি ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরাযুক্ত যা একটি একক টেক ক্যামেরার বৈশিষ্ট্যযুক্ত। সিঙ্গল টেক বৈশিষ্ট্যটি একটি এআই-সক্ষম সক্ষম ক্যামেরা যা ৩ থেকে ১০ সেকেন্ডের ক্যাপচার টাইমিং এর মধ্যে ১৪ ধরণের টি ছবি তুলতে সক্ষম। পাশাপাশি মনে করা হচ্ছে এই গ্যালাক্সি এম ফিফটিওয়ান-এর দাম আনুমানিক ৩০,০০০ এর মধ্যে থাকবে।