ডিসেম্বর মাসে পৌষমেলা নিয়ে একাধিক বিতর্কে জড়িয়েছিল বিশ্বভারতী। কমিয়ে দেওয়া হয়েছিল মেলার দিনের সংখ্যা। পাশাপাশি দূষণ রুখতেও নেওয়া হয়েছিল একাধিক পদক্ষেপ। যার জেরে শান্তিনিকেতন থেকে মুখ ফিরিয়েছিল অনেক পর্যটকই। সেই খামতি মেটাতে ব্যবসায়ীরা পাখির চোখ করেছিল বসন্ত উৎসবকে। এবার সেই খাতেও বড় কোপ মারল বিশ্বভারতী কতৃপক্ষ। 

আরও পড়ুনঃ পর্যটকদের জন্য সুখবর, চিল্কার হ্রদে বাড়ল ডলফিনের সংখ্যা

২০২০-তে বদল করা হল বিশ্বভারতীতে বসন্ত উৎসবের সূচী। দোলের সময় নয়, তার একমাস আগেই দোল উৎসবে মাতবে বিশ্বভারতী। তবে কেবলই সময়সীমার পরিবর্তন করা নয়, পাশাপাশি আরও অনেক বাধা নিষেধ জাড়ি করা হল এই বিশ্বভারতীর পক্ষ থেকে। যার মধ্যে অন্যতম হল পর্যটকদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না এই উৎসবে। 

উৎসব কেবলমাত্র সীমিত থাকবে শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে। বাইরের কেউ অংশ গ্রহণ করতে পারবে না এই উৎসবে। বিশ্বভারতীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এতে  সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে, পাশাপাশি বাড়ছে বিশৃঙ্খলা। তাই এবার কড়া নিয়মের ঘেরাটোপে বাঁধা হল বসন্ত উৎসবকে। সেই কোপ গিয়ে পড়ল শান্তিনিকেতনের ব্যবসায়ীদের ওপর। পাশাপাশি এই দিন স্থির করা হয় ১৮ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি।