অবশেষে তিনি মানলেন, আবার মানলেন নাও বটে। রবিবার প্রথমবারের মতো জো বাইডেনকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ২০২০-এর জয়ী বলে প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও তারপরও হার স্বীকার করতে তিনি রাজি নন। একই সঙ্গে আবার 'নির্বাচনে কারচুপি করা হয়েছে' বলে দাবি করেছেন তিনি। তবে তা সত্ত্বেও, ট্রাম্পের এই প্রথমবার টুইট করে বাইডেনের জয়কে স্বীকৃতি দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

রবিবার সকাল সকাল (স্থানীয় সময় অনুযায়ী) ট্রাম্প টুইট করে বলেন, 'নির্বাচনে কারচুপি করা হয়েছে বলেই উনি (জো বাইডেন) জিতেছেন'। সেইসঙ্গে ট্রাম্প অভিযোগ করেছেন কোনো ভোট পর্যবেক্ষককে নাকি গণনাকেন্দ্রে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়নি। ডোমিনিয়ন নামে একটি চরমপন্থী  বাম বেসরকারী মালিকানাধীন সংস্থার তৈরি খারাপ সরঞ্জাম ব্যবহার করে ভোট করা হয়েছে বলেই তিনি হেরেছেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

তবে, তাঁর এই কন্সপিরেসি থিয়োরি সত্ত্বেও ট্রাম্পের 'উনি জিতেছেন' কথাটির উপরই এই মুহূর্তে ফোকাস রয়েছে। গত ৭ নভেম্বর চারদিন ধরে ভোট গণনার পর, ডেমোক্র্যাটিক দল মনোনীত প্রার্থী জো বাইডেনকেই ৪৬ তম নির্বাচিত মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসাবে ঘোষণা করেছিল মার্কিন সংবাদমাধ্যম। শনিবারই (১৫ নভেম্বর) নির্বাচনের পুরো ফল সামনে এসেছিল। বাইডেন ৩০৬টি এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ২৩০টি ইলেক্টোরাল কলেজের ভোট পেয়েছেন। ৫১ শতাংশ ভোট পেয়ে পপুলার ভোটেও জয়ী বাইডেন-ই।

তবে তারপরও, শনিবার ট্রাম্প প্রশাসনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও জানিয়েছিলেন আগামী ২০ জানুয়ারি দ্বিতীয় ট্রাম্প প্রশাসন কাজ শুরু করবে। কিন্তু, তারপরদিনই ট্রাম্পের এই টুইট মানসিকভাবে ট্রাম্পের পরাজয় স্বীকারেরই ইঙ্গিত বলে মনে করা হচ্ছে। এতদিন সমানে টুইট করে 'আমরাই নির্বাচনে জিতেছি' বলে দাবি করে গিয়েছেন ট্রাম্প। তবে এদিনের স্বীকারোক্তির পরও তিনি ছয়টি সুইং রাজ্যে নির্বাচনের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ জানাবেন বলেই মনে করা হচ্ছে।