পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সফরের সময়ে কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতা করার কথা জানিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এও দাবি করেছিলেন যে, কাশ্মীর ইস্যুতে  মার্কিন প্রেসিডেন্ট-কে মধ্যস্থতা করার জন্য নাকি নরেন্দ্র মোদীই আবেদন করেছেন। তবে  এবার আর কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতায় নেই ট্রাম্প।

সোমবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকা ভারতীয় রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রিংলা জানিয়েছেন, কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করার কথা আর ভাবছেন না ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি আরও বলেন, কয়েক দশকের পুরনো মার্কিন নীতিতে কাশ্মীর নিয়ে আমেরিকার মধ্যস্থতা করার বিষয়ে কোনও উল্লেখ নেই, বরং সেখানে বলা আছে, এই বিষয়ে ভারত ও পাকিস্তান এই দুই দেশ নিজেরা আলোচনা করে এর সমাধান সূত্র পৌঁছক। 

গুরু নানকের জন্মদিনে অভিনব উদ্যোগ, প্রসাদ হিসাবে বিতরণ করা হবে চারাগাছ

শুধু তাই নয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্পষ্টভাবেই জানিয়ে দিয়েছেন যে, জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতা করার তাঁর  প্রস্তাবটি আর বিচারযোগ্য নয়। এর অন্যতম কারণ হল, কাশ্মীর নিয়ে দুই দেশের মধ্যে মধ্যস্থতার বিষয়টি ভারত এবং পাকিস্তান-দুই দেশের উপরেই নির্ভরশীল। কিন্তু ভারত যেহেতু মার্কিন প্রেসিডেন্টের মধ্যস্থতার প্রস্তাব গ্রহণ করেনি, তাই তিনি স্পষ্ট করে জানিয়েছেন যে, এটি আর বিবেচনার মধ্যে নেই।

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি সংবাদমাধ্যমকে প্রকাশিত সাক্ষাতকারে এমনটাই জানায়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত  হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। প্রসঙ্গত, পাক প্রধানমন্ত্রীর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরের পরেও ফের ট্রাম্প মন্তব্য করেছিলেন যে, ভারত ও পাকিস্তান চাইলে কাশ্মীরের ইস্যুতে অবশ্যই হস্তক্ষেপ করবেন তিনি। তবে তিনি আরও বলেছিলেন যে, কাশ্মীর ইস্যুর সমাধান ভারত ও পাকিস্তানের আভ্যন্তরীণ ব্যপার, তবে দুই দেশ যদি এই সমস্যা সমাধানে তাঁর হস্তক্ষেপ চায় তবে তিনি সাহায্য করতে প্রস্তুত। তবে বিষয়টি নিয়ে এবার স্পষ্ট কথা জানিয়েদিলেন ট্রাম্প।