প্রথম জেমস বন্ড অর্থাৎ শন কনারি-কে 'অ্যাপল' সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসডার করতে চেয়েছিলেন স্টিভ জোবস! কিন্তু, তাঁকে খালি হাতেই ফিরিয়েছিলেন হলিউড কাঁপানো অভিনেতা। শুধু তাই নয়, বেশ রুঢ় এবং আক্রমণাত্মক ভাষাতেই তার জবাব দিয়েছিলেন কনারি। শনিবার, ৩১ অক্টোবর ৯০ বছর বয়সে শন কনারির মৃত্যুর পর, ১৯৯৮ সালে জোবস-কে লেখা কনারির চিঠি বলে দাবি করা একটি চিঠির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। এমনিতে বেশ স্পষ্টবক্তা ও ঠোঁট কাটা বলে পরিচিত ছিলেন শন কনারি, কিন্তু স্টিভ জোবসকে সত্যিই কি তিনি এমন কোনও চিঠি লিখেছিলেন?

ভাইরাল হওযা সেই চিঠি অনুযায়ী কনারি জোবস-কে লিখেছেন, 'আমি এটা আর একবার বলব। আপনি ইংরাজি বোঝেন তো, না কি? আমি অ্যাপল বা অন্য কোনও সংস্থার কাছে আমার আত্মা বিক্রি করি না। আপনার ইচ্ছা অনুসারে 'বিশ্বের পরিবর্তন' করায় আমার কোনও আগ্রহ নেই। আমার যা প্রয়োজন বা আমি যা চাই তার কিছুই আপনার কাছে নেই। আপনি একজন কম্পিউটার বিক্রেতা - আর আমি জেমস বন্ড!'

এশিয়ানেট নিউজ বাংলার পক্ষ থেকে চিঠিটির ছবি নিয়ে গুগল সার্চে বিপরীত অনুসন্ধান চালানো হয়। দেখা গিযয়েছে, ২০১১ সালে এই একি চিঠি বেশ শোরগোল ফেলেছিল মার্কিন মুলুকে। বিজনেস ইনসাইডার, ওয়াশিংটন পোস্ট-এর মতো মার্কিন সংবাদমাধ্যমে চর্চা হয়েছিল চিঠিটি নিয়ে। তবে এই চিঠিটি ভুয়ো। সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয়েছিল স্কুপার্টিনো নামে একটি ব্যঙ্গাত্মক নিউজ ওয়েবসাইটে। এই ওয়েবসাইটটি ঘোষিতভাবেই কাল্পনিক সংবাদ পরিবেশন করে।

ওই ব্যঙ্গাত্মক ও কাল্পনিক প্রতিবেদনে চিঠিটির ছবি প্রকাশ করে লেখা হয়েছিল, স্টিভ জোবস আজীবন জেমস বন্ডের ভক্ত ছিলেন। এমনকী আইম্যাক কম্পিউটারটির নাম তিনি নাকি 'ডাবল-ও-ম্যাক' রাখতে চেয়েছিলেন। ১৯৯৮ সালে তিনি এক বিশেষ সেলিব্রিটিকে দিয়ে অ্যাপল সংস্থার বড়দিনের বিজ্ঞাপন করাতে চেয়েছিলেন। সেই সেলিব্রিটিই ছিলেন শন কনারি। বলাই বাহুল্য পুরোকাহিনিটিই মনগড়া।

কাজেই ৯০ বছর বয়সে শন কনারির মৃত্যুর পর, স্টিভ জোবস-কে লেথা তাঁর চিঠি বলে যে চিঠির ছবি অনলাইনে ভাইরাল হয়েছে তা বস্তুত ভুয়ো, একটি ব্যঙ্গাত্মক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত কাল্পনিক চিঠি। এমন কোনও চিঠি জোবস আর কনারির মধ্যে চালাচালি হয়নি।