কম্পিউটারের দুনিয়ায় আধুনিক প্রযুক্তির ক্ষেত্রে মাইক্রোসফটের নাম জগতজোড়া। নিজের প্রতিষ্ঠা করা সেই সংস্থার পরিচালন বোর্ড থেকে এবার অবসর নিলেন মার্কিন ধনকুবের বিল গেটস। শুক্রবারই মাইক্রোসফটের তরফে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়। এই বিবৃতিতে জানান হয় সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস বোর্ড অফ ডিরেক্টরসের দায়িত্ব থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।

জানা যাচ্ছে, আগামীদিনে আরও বেশি করে সমাজসেবামূলক কাজ করতে চান গেটস। সেই কারণেই এবার নিজের তৈরি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সাড়ে চার দশকের সম্পর্কে ইতি টানলেন তিনি। তবে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে মাইক্রোসফটের জৈনন্দিন কাজ থেকে নিদেকে প্রায় সরিয়েই নিয়েছিলেন গেটস। স্ক্রী মেলিন্ডার সঙ্গে মিলে তৈরি করেছিলেন বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। মাইফ্রোসফটের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ করে এবার বেশি করে  বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা ফাইন্ডেশেনর কাজেই মন দেবেন তিনি। 

আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্রে আরও ২ করোনা আক্রান্তের খোঁজ, সাহায্যে চেয়ে নেতানিয়াহুর আবেদন মোদীর কাছে

সংস্থার তরফে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে মাইক্রোসফটের চিফ এগজিকিউটিভ সত্য নাদেলা জানিয়েছেন, ‘এত বছর ধরে বিলের সান্নিধ্যে থাকা এবং ওঁর থেকে বহু বিষয়ে শিক্ষা পাওয়ার যে অভিজ্ঞতা তা আমার কাছে এক বিশাল বড় পাওনা এবং নিঃসন্দেহে গর্বের। বিল এই সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন একটা বিশ্বাস নিয়ে। উনি আস্থা রেখেছিলেন সফটওয়্যারের ডেমোক্রেটাইজিং ক্ষমতার উপরে। চেয়েছিলেন সমাজের কিছু সমস্যার সমাধান করতে। ওঁর এই ভাবনাই মাইক্রোসফট এবং এই দুনিয়াকে আরও সুন্দর করে তুলেছে। ওঁর বন্ধুত্বের দন্যে আমি কৃতজ্ঞা। আগামীদিনেও ওঁকে পাশে নিয়েই কাজ করব।’

কম্পিউটার বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে বিল গেটসের অবদান বিশ্বজুড়ে সমাদৃত। ১৯৭৫ সালে সতীর্থ পল অ্যালেনের সঙ্গে জোট বেঁধে গেটস তৈরি করেন মাইক্রোসফট সংস্থা। নানা ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়ে গিয়েও এতগুলো বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমে কম্পিউটার প্রযুক্তিকে আমজনতার হাতের মুঠোয় এনে দিয়েছে এই সংস্থা। ২০০০ সাল পর্যন্ত বিল গেটস নিজেই মাইক্রোসফটের সিইও পদে ছিলেন। তারপর দায়িত্ব ছেড়ে সংস্থার বোর্ড সদস্য হিসেবে কাজ করছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: চিন নয় মহামারির কেন্দ্রস্থল এখন ইউরোপ, ঘোষণা হু'র, শূণ্যর নিচে আর্থিক বৃদ্ধি নামার আশঙ্কা

প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্ব ছেড়ে আগামীদিনে  বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন, শিক্ষা ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন ৬৫ বছরের বিল গেটস।মার্কিন বিজনেস পত্রিকা 'ফোর্বস'-এর পরিসংখ্যান  অনুসারে বিল গেটস বর্তমানে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষস্থানীয় ধনী। তার আগে আছেন  ‘অ্যামাজন’র প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস। বিল গেটসের বর্তমান সম্পত্তির অর্থমূল্য প্রায় ১০৩.৬ বিলিয়ন।  গেটস মাত্র ৩১ বছর বয়সেই  সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টায় বিশ্বের কোটিপতিদের তালিকায় নিজের নাম লিখিয়েছিলেন।