Asianet News Bangla

ফের শিরোনামে লাদেনের পরিবার - বাইডেন-পুতিন বৈঠকে ভাগ্নীর হানা, ট্রাম্পকেই চাইলেন তিনি

জেনেভায় চলছে বাইডেন-পুতিন বৈঠক

সেখানেই হানা দিলেন ওসামার ভাগ্নী

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল তাঁর ছবি-ভিডিও

কী দাবি জানালেন তিনি

 

Osama Bin Laden's niece voices support for Trump during Biden-Putin summit  ALB
Author
Kolkata, First Published Jun 18, 2021, 9:11 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

জেনেভায় ঐতিহাসিক সম্মেলন চলছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। আর তারমধ্যেই সংবাদ শিরোনামে ফিরে এল, একসময় বিশ্বের ত্রাস, ওসামা বিন লাদেনের পরিবার। বাইডেন-পুতিন শীর্ষ বৈঠকে হানা দিলেন ওসামা বিন লাদেনের ভাগ্নী। তবে না, ১১ সেপ্টেম্বর ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে আঘাত হানা ওসামার ভাগ্নী কিন্তু আমেররিকা বিরোধী নন, বরং তিনি বািডেন বিরোধী বা বলা ভাল ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থক।

আর কত বড় সমর্থক? ২০২০ সালের নভেম্বরে হয়ে গিয়েছে মার্কিন নির্বাচন। তার ৭ মাস পরেও, ৩৪ বছর বয়সী নূর বিন লাদেনকে দেখা গিয়েছে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থনে নীল রঙের পতাকা নিয়ে সুইজারল্যান্ডের জেনেভা লেকে নৌকোয় দাঁড়িয়ে থাকতে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওসামা-ভাগ্নীর এই ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ৯ / ১১-এর মাস্টারমাইন্ডের ভাগ্নীর এখনও দৃঢ় বিশ্বাস, সর্বশেষ মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জো বাইডেন নন, ট্রাম্পই জয়ী হয়েছেন। আর তিনি চান ট্রাম্পকে ফের হোয়াইট হাউসে ফিরিয়ে আনা হোক।

পরে অবশ্য সুইস পুলিশ তাঁর ট্রাম্পপন্থী সাইনবোর্ডগুলি বাজেয়াপ্ত করে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওে দেখা গিয়েছে, নূর বিন লাদেন পুলিশকে জিজ্ঞেস করছেন, 'আপনারা কি আমায় গ্রেফতার করবেন? আমি যদি সাইনবোর্ডগুলি আপনাদের না দিই, তবে আপনারা কি আমায় গ্রেফতার করবেন? ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০২০ সালের নির্বাচনে জিতেছেন, আর আমরা সুইজারল্যান্ডে তাঁকে সমর্থন করতে পারব না?'

২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছিলেন ট্রাম্প। তার আগে ২০১৫ সাল থেকে তার জন্য প্রচার শুরু করেছিলেন এই ব্যবসায়ী তথা প্রাক্তন রিয়েলিটি শো তারকা। বলা যেতে পারে সেই প্রথম রাজনীতি করা শুরু করেছিলেন ট্রাম্প। আর সেই প্রথম দিন থেকেই ট্রাম্পের কট্টর সমর্থক হিসাবেই পরিচিত নূর বিন লাদেন। ট্রাম্পের 'সংকল্প'এর দারুণ প্রশংসা করেন তিনি। তাঁর মতে ২০২০ সালে ট্রাম্পের পুনর্নির্বাচন শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়, সামগ্রিকভাবে পাশ্চাত্য সভ্যতার ভবিষ্যতের জন্যই দারুণ গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios