শুধু কমলা হ্যারিস নয়। টিম বিডনে রয়েছে আরও এক প্রভাবশালী ভারতীয় বংশোদ্ভূত। তিনি হলেন মাজু ভার্গেস। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মূল প্রতিপক্ষ জো বিডনের প্রচার পরিচালনা করার গুরু দায়িত্ব সামলাচ্ছেন তিনি। বিডনের সিনিয়র উপদেষ্টার দায়িত্বও রয়েছে তাঁর কাঁধে। রাজনীতির ময়দানে এটাই তাঁর প্রথম সফর নয়। এর আগে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসনেও একাধিক দায়িত্ব সামলেছেন মাজু ভার্গেস। 


মার্কিন রাজনীতিতে মাজু ভার্গেসের এই উত্থান অনেকটা রূপকথার গল্পের মত। সালটা ছিল ১৯৭০। মাত্র কয়েকটা টাকা আর অনেক অনেক স্বপ্ন নিয়ে দেশ ছেড়েছিলেন মাজুর বাবা মা। কেরলের থিরুভালা থেকে পাড়ি দিয়েছিলেন নিউউয়র্কে। মাজু ভার্গেসের মা ছিলেন নার্স। তিনিই প্রথম আমেরিকা আসেন। পরবর্তীকালে তাঁর ৬ বছরের কন্যা মঞ্জুকে নিয়ে মার্কিন দেশে চলে আসেন স্বামী ম্যাথু। পরবর্তীকে মাজুর জন্ম হয় আমেরিকাতে।  

ঘনিষ্টদের মধ্যে মাজু জানিয়েছেন, ভার্গেস পরিবারের প্রথম দিকের লড়াই খুব একটা সহজ ছিল না। কারণ তাঁর বাবা ম্যাথু পড়া শেষ করতে পারেননি। রোজগার করার জন্য ক্যাব চালাতে শুরু করেছিলেন। নিউ ইয়র্ক শহরে গাড়ি চালিয়েই আয় করতেন। গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করতেন তাঁর বাবা। ওয়াশিংটনে ভারতীয় ক্যাব চালকের সঙ্গে আলাপ হওয়ার পর একথা বলেছিলেন ভার্গেস। তিনি আরও বলেন সেই ক্যাব চালক যখন গাড়িতে বসেই বাড়ির তৈরি করা খাবার খাচ্ছিলেন তখন তিনি তাঁর মধ্য়ে তাঁর বাবা ম্যাথুর প্রতিচ্ছবি দেখতে পেয়েছিলেন। তাঁর বোন মঞ্জু প্রথম দিকে ভালো করে ইংরাজি বলতে পারত না। তাই নিয়েও হাসি ঠাট্টা করতে তাঁর সহপাঠীরা। কিন্তু বাবা আর মায়ের সাহায্যেই এই লড়াইয়ে ভাইবোন পাশ করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। আনাবাসী ভারতীয়দের সাহায্য পেয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। 

ভার্গেস ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও অর্থনীতি নিয়ে পড়াশুনা করেছেন।  রয়েছে আইনের ডিগ্রিও। তিনি আল গোরের রাষ্ট্রপতি প্রচার ও ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশানাল কমিটির সঙ্গে একটি গবেষণার কাজ করেছিলেন।  তাঁর স্ত্রী জুলিও তাঁর সহযোগী। ইভান নামে ১৪ বছরের এক পুত্র সন্তান রয়েছে তাঁদের। 

৪৩ বছরের ভার্গেস বর্তমানে মার্কিন রাজনীতির একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব। ৬ বছর তিনি ওবামা প্রশাসনে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছিলেন। প্রাক্তন মার্কিন রাষ্ট্রপতির সহকারীও ছিলেন। তাঁর এই উত্থানকে অনেকেই স্বপ্ন বলেই মনে করেন। ভার্গেস জানান তাঁর মত সাধারণ পরিবার থেকে আসা এক ব্যক্তিকে গুরুদায়িত্ব দিয়ে ওবামা প্রকারান্তে ওবামা তাঁর ভারতপ্রীতির কথা বুঝিয়েছেন বলেই দাবি করেন মাজু। ওবামার সঙ্গে হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর তিনি একাধিক সংস্থায় অ্যাডভাইরাস হিসেবে কাজ করেছেন। ২০১০ সাল থেকেই তিনি বিডনের দলে নাম লেখান। তারপর থেকেই নিজের কর্মদক্ষতায় বিডনের মন জয় করেন। বর্তমানে তিনি জোটিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য।