ময়দানে আগে কোনও ভাল ফুটবলারকে সই করানোর জন্যতাকে অপহরণও করা হতো। এতদিন, পর্যন্ত 'খেলা হবে'র ভোটে হত্যা, মার দাঙ্গা কম হয়নি। ষষ্ঠ দফার ভোটে উঠল অপহরণের অভিযোগও। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের সাত-সাত জন বুথ এজেন্ট 'নিখোঁজ', এমনই অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার পিছনে বিজেপিরই হাত রয়েছে বলে দাবি রাজ্যের শাসক দলের। জগদ্দলের ঘটনা।

জানা গিয়েছে, জগদ্দল বিধানসভা কেন্দ্রের মেঘনা জুটমিল-এ ৩টি এবং মেঘনা মজদুর ক্লাবে ৪টি ভোটকেন্দ্র হয়েছে। এই ৭টি বুথেরই তৃণমূল এজেন্টদের এদিন সকাল থেকেই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকী তাদের ফোন করেও ধরা যাচ্ছে না, কারণ মোবাইলগুলি সুইচড অফ করা আছে। ফলে সকাল থেকেই ওই ৭টি বুথে শাসক দলের কোনও এজেন্টই নেই। তবে, এই এজেন্টদের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রত্যেকেই এদিন সকালে বুথে যাওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত বুথে পৌঁছাননি। মাঝপথেই কোথাও উধাও হয়ে গিয়েছেন।

খবর পেয়ে এলাকায় আসেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সোমনাথ শ্যাম। তিনিও বহু চেষ্টা করেও ওই এজেন্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি। তাঁর অভিযোগ গত কয়েকদিন ধরেই ওই এলাকায় বিজেপি আশ্রীত দুষ্কৃতীরা, তাঁদের এজেন্টদের হুমকি দিচ্ছিলেন। এদিন বুথে যাওয়ার পথে পদ্ম  শিবির থেকেই তাঁদের অপহরণ করেছে। এইভাবে ওই বুথগুলিতে ভোট লুঠ করার চেষ্টা করছে বিজেপি, এমনটাই অভিযোগ করেছেন তিনি। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে অন্য ওই বুথগুলিতে অন্য এজেন্ট বসানোর চেষ্টা করছে তৃণমূল। বুথ এজেন্টদের নিখোঁজ হওয়ার প্রেক্ষিতে পুলিশেও অভিযোগ করা হয়েছে, বলে জানিয়েছে ঘাসফুল শিবির।