সোমবার শিরোণামে জঙ্গলমহল। এদিন একই সঙ্গে মমতা-শাহের দ্বৈরথের সাক্ষী হতে চলেছে  জঙ্গলমহল। একদিকে জোড়া 'বিশাল' জনসভা মমতার। অপরদিকে অমিত শাহের এদিন জোড়া জনসভা।'ভাঙা পায়েই খেলা হবে' বলে গতকালই হুঙ্কার তুলেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। প্রবল পায়ে যন্ত্রনা নিয়ে নেমেছিলেন তৃণমূলের মিছিলে। সোমবার  মোট ৪ সমাবেশ বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়ায়- শাহ-মমতার দ্বৈরথ দেখার অপেক্ষায় বাংলা।

 

আরও পড়ুন, দ্বিতীয় দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা কংগ্রেসের, ৩৪ জনের মধ্য়ে জায়গা পেলেন না দীপা দাশমুন্সি  

 

 

তৃণমূল সূত্রে খবর, এদিন মোট দুটি বিশাল জনসভা রয়েছে মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের। প্রথমটি বেলা ১২ টার সময় বাঘমুন্ডি বিধানসভার হয়ে ঝালদা হাইস্কুল ময়দানে এবং দুপুর ১ টা নাগাদ বলরামপুর বিধানসভার হয়ে মইসি বাড়ি গ্রাউন্ডে। অপরদিকে বিজেপি সূত্রে খবর, সোমবার সকাল ১১ টা নাগাদ ঝাড়গ্রামে প্রথম সভা করবেন অমিত শাহ। তারপর সেখান থেকে চলে যাবেন বাঁকুড়ায়। খড়গপুরে রোড শো করলেও ঝাঁড়গ্রাম-বাঁকুড়াই প্রধান লক্ষ্য শাহের। কারণ ২০১৯ এ লোকসভা নির্বাচনে জাঁঢ়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া এই তিন জায়গা থেকেই লোকসভা কেন্দ্রে জয় হয়েছে বিজেপির। সেই ধারাকেই অটুট রাখার লক্ষ্য়ে সোমবার ঝড় তুলবেন অমিত শাহও।

 

 

 আরও পড়ুন, নজরে অধীর গড়, মুর্শিদাবাদে আসন দখলে পিকের আইপ্যাক টিমের রুদ্ধদ্বার বৈঠক  


 প্রসঙ্গত,  রবিবার প্রবল পায়ে যন্ত্রনা নিয়ে হুইলচেয়ারে বসেই প্রায় কলকাতায় ৫ কিমি রাস্তা মিছিলকে নের্তৃত্ব দেন।  মিছিল চলাকালীনই মমতা জানিয়েছেন, 'পায়ে প্রবল যন্ত্রনা অনুভব করছি।' তবে মিছিল শেষে ক্লান্ত শরীরে দৃঢ় কন্ঠে বললেন, 'শারীরিক যন্ত্রনার থেকে গণতন্ত্রের যন্ত্রনা অনেক বেশি।তিনি এদিন আরও বললেন যে, চিকিৎসক তাঁকে ১৫ দিনের বেড রেস্টে থাকতে বলেছে। কিন্তু দোরগড়ায় যে ভোট, তিনি শুয়ে থাকবেন কী করে। মানুষের জন্য জন্য যন্ত্রনা অনুভব করেছেন বলে জানালেন মমতা।তৃণমূলের মিছিলকে নের্তৃত্ব দেন মমতা।একুশের বিধানসভা নির্বাচনের দোরগড়ায় দাঁড়িয়ে এহেন পরিস্থিতিতেও হার না মানার পথে এগিয়ে চলেছেন মমতা। তবে নন্দীগ্রাম ইস্যুতে এত কাণ্ড, সেই মমতার আহত হওয়ার ঘটনাকে ইতিমধ্য়েই ২ পর্যবেক্ষকে রিপোর্ট দেখে 'হামলা নয় - দুর্ঘটনা'-র সিলমোহর দিয়েছে কমিশন।