ঝাড়গ্রামের বাসিন্দাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন অমিত শাহ। বললেন তাঁর হেলিকপ্টারের প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণেই তিনি ঝাড়গ্রামের জনসভায় সশরীরে উপস্থিত হতে পারেননি। প্রচুর মানুষ, যাঁরা তাঁর জন্য অপেক্ষা করেছিলেন তাঁদেরকে কৃতজ্ঞতাও জানিয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা। তিনি আরও বলেছেন, যাঁরা অপেক্ষা করেছেন তাঁদেরকে আন্তরিকভাবে তিনি ধন্যবাদ জানাচ্ছেন। পরিবর্তে ঝাড়গ্রাম অগ্রণী ভূমিকা গ্রহণ করবে। এদিন সন্ধ্যেবেলা সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে একথা জানিয়েছেন অমিত শাহ। এদিন ঝাড়গ্রামের জনসভায় পৌঁছাতে না পেরে খড়গপুরের একটি হোটেল থেকে ভার্চুয়াল জনসভা করেন তিনি। কিন্তু সেই সময় খুবই অল্প সময়ের জন্য বক্তব্য রাখেন অমিত শাহ। 

ঝাড়গ্রামের জনসভায় উপস্থিত না হলেও ভার্চুয়াল বৈঠকে রীতিমত কল্পতরু হয়ে যান অমিত শাহ। তিনি বলেন,রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে আদিবাসীদের জন্য কী কী পদক্ষেপ করা হবে তা দলের ইস্তেহারে লেখা হচ্ছে। তবে তিনি জানিয়েছেন আদিবাসী পড়়ুয়াদের জন্য পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হবে। কেন্দ্র আদিবাসীদের জন্য একলব্য স্কুল প্রকল্প চালু করেছে। কিন্তু তৃণমূল সরকার সেই প্রকল্পকে বাংলায় বাস্তবায়িত হতে দেয়নি। বিজেপি ক্ষমতায় এলে একলব্য স্কুল তৈরি হবে। সার্টিফিকেট পাওয়ার জন্য কোনও আদিবাসী তরুণ তরুণীকে হয়রান হতে হবে না। অলচিকি ভাষায় শিক্ষক নিয়োগেরও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। 

তবে কি তিনিও যাবেন বিজেপিতে, শোভনদের গেরুয়া শিবির ত্যাগের পরই তৃণমূল ছাড়ালেন দেবশ্রী ...

পেট্রোল ও ডিজেল থেকে বিপুল পরিমাণে রাজস্ব আদায় হয়, স্বীকার করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, জেনে নিন লাভের প...
দুদিনের সফরে রবিবার রাতেই তিনি অসম থেকে পশ্চিমবঙ্গে এসেছেন অমিত শাহ। গতকাল রাতেই খড়গপুরে দলীয় প্রার্থী হিরণের সমর্থনে রোডশো করেন তিনি। সেখানেই তিনি বলেন আগামী দিনে বাংলায় আসল পরিবর্তন হবে। বিজেপি ২০০ আসন পেয়ে বাংলার বিধানসভা দখল করবে। এদিন বেলা ১১টা নাগাদ ঝাড়গ্রামে তাঁর জনসভায় উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তাঁর কপ্টারে প্রযুক্তিগত বিভ্রাটের কারণে ঝাড়গ্রামের জনসভায় উপস্থিত হতে পারেননি। তিনি রানিবাঁধের জনসভায় উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখান থেকেই আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষের উন্নয়েনের পক্ষে সওয়াল করেন। একই সঙ্গে ঘোষণা করেন কেন্দ্রের মোদী সরকার আদিবাসী মানুষের উন্নয়নের জন্য কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। রাজ্য বিজেপি ক্ষমতায় এলে পিছিয়ে পড়া মানুষের উন্নয়নে একাধিক প্রকল্প গ্রহণ করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। 

যদিও ঝাড়গ্রামের জনসভায় অমিত শাহর অনুপস্থিতিকেই হাতিয়ার করে এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয় তৃণমূল কংগ্রেস। কটাক্ষ করে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বলা হয়, সভায় ভিড় হয়নি বলেও স্বারাষ্ট্র মন্ত্রী সভায় উপস্থিত থাকলে না। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন গেরুয়া বাহিনীকে খোঁচা দিয়ে বলেন, শুনলাম লোকের অভাবে ঝাড়গ্রামে একটা সভা বাতিল করা হয়েছে। তারপরই তিনি বলেন আগে তাঁকে বললেই তিনি সভায় লোক পাঠিয়ে দিতেন।