নাড্ডার পর এবার বাংলায় আসছেন শাহ। সামনেই ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন। বাংলায় একুশের ভোটকে পাখির চোখ করে শব্দ বাণ নিক্ষেপ করতে মুখিয়ে আছে বিজেপি। সেজন্যই ডায়মন্ডহারবারে সভা ছিল বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার। তখন সবে সকাল পেরিয়ে দুপুর। কলকাতা থেকে রওনা দেওয়ার সময় পুস্পবৃষ্টিও করা হয় নাড্ডা সহ প্রত্য়েকের গাড়ির উপর। তখনও কেউ কি  জানত শোরকোলে ঢুকলে পাথরবৃষ্টি হবে। একুশে বিজেপির বাংলা জয়ে শব্দবাণ নিক্ষেপ করার আগে কোল্ডডিঙ্কের বোতল নিক্ষেপ করা হয় নাড্ডার  কনভয়ে। ভুক্তভুগী দিলীপ থেকে কৈলাস বিজয় বর্গীয় সহ হেভিওয়েট নেতারা। অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। এমনই রাজনৈতিক মুহূর্তে বাংলায় আসবেন অমিত শাহ।

 

 

'এই হিংসার জন্য বাংলার সরকারকে জবাব দিতে হবে' 
 
বিজেপি সূত্রে খবর, নাড্ডার পর এবার রাজ্য়ে আসছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ১৯ এবং ২০ ডিসেম্বর শাহের সফর বাংলা জুড়ে। অংশ নেবেন একাধিক কর্মসূচিতে। যেতে পারেন জেলা সফরেও। ইতিমধ্য়েই নাড্ডার কনভয়ে হামলা নিয়ে টুইটো সরব ছিলেন শাহ। একের পর এক টুইটে তিনি বলেছেন, 'আজ বাংলার বিজেপির সভাপতি জেপি নাড্ডার উপর আক্রমণ খুব নিন্দনীয়। কেন্দ্রীয় সরকার এই ঘটনা গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। এই হিংসার জন্য বাংলার সরকারকে রাজ্য়ের শান্তিকামী মানুষদের জবাব দিতে হবে। তৃণমূল শাসনের অধীনে বাংলা অত্যাচার, অরাজকতা এবং অন্ধকারের যুগে পরিণত হয়েছে। টিএমসি-র অধীনে বর্তমানে বাংলায় যেভাবে রাজনৈতিক হিংসা বাড়ছে,তা গনতান্ত্রিক মূল্য়বোধে বিশ্বাসী সব মানুষের কাছেই দুঃখজনক এবং উদ্বেগজনক।'

 

 

শাহের বাংলা সফর আরও অনেকখানি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠল

প্রসঙ্গত, প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার ডায়মন্ড হারবারে যাওয়ার পথে একাধিক শীর্ষ বিজেপি নেতার গাড়িতে হামলা হয়। কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, অনুপম হাজরার গাড়িতে ইট ছুঁড়ে ভাঙচুর, এবং জেপি নাড্ডার গাড়িতেও পাথর বৃষ্টি করা হয়। কাচে বোতল ছুঁড়েও আক্রমণ করা হয়েছে। অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। উল্লেখ্য, এর আগে নভেম্বরের শুরুতেই রাজ্যে আসেন অমিত শাহ। দুদিনের সফরে বাঁকুড়া যান তিনি। এদিকে বীরসা মুন্ডার মুর্তিতে মালা দেওয়ার পর রব ওঠে ওটি একটি শিকার মূর্তি। সুতরাং এই অপমানের জন্য ক্ষমা চাই হবে শাহকে। এবং দ্বিতীয় দিনে মতুয়াদের বাড়িতে পাত পেড়ে মধ্যাহ্ন ভোজ সারেন শাহ সহ বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্ব। যোগী রাজ্য়ের ধর্ষণ ঢাকতেই মতুয়া প্রেম বলে আক্রমণ করে তৃণমূল শিবির। তবে এবার নাড্ডার সফরে হামলার পর শাহের বাংলা সফর আরও অনেকখানি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।