জিতেন্দ্র বিজেপিতে এলে মেনে নিতে পারবেন না, সাফ জানালেন বাবুল। এদিকে ইস্তফা দেওয়ার পর বিজেপি ছাড়া গতিও নেই জিতেন্দ্রর। একদিকে দলে থাকাকালীন ফিরহাদ বাধা হয়ে দাড়িয়েছিল। এবার নতুন ট্রেনে চাপার আগেই পুরোনো ভূলের মাশুল গুণতে হবে নাতো জিতেন্দ্রকে,চাপান উতোর রাজনৈতিক মহলে। ঠিক কী কারণে জিতেন্দ্র থেকে মুখ সরিয়েছেন বাবুল, জেনে নেওয়া যাক কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মুখ থেকেই। 


 জিতেন্দ্র প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বলেছেন, 'যাঁরা এতদিন আসানসোলের বিজেপি কর্মীদের উপরে অত্য়াচার করেছেন, যাঁরা কয়লা-বালির অবৈধ লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত ছিল, তাঁরা বিজেপিতে এলে মন থেকে মনে নিতে পারবেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বার্তাই জানিয়েছে বাবুল। আসানসোলের বিজেপি-কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বাবুল বলেছেন, 'আপনাদের সঙ্গে আমি বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারব না।'

অপরদিকে বাবুল  আরও বলেন, আসানসোলের অনেক তৃণমূল নেতা বিশেষ করে জিতেন্দ্র তিওয়ারি ইস্তফার পর এমন একটা খবর ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে, যে বাবুল সুপ্রিয়ের সঙ্গে এই নেতাদের গোপন সমঝোতা হয়েছে। আমার দলে কেন্দ্রীয় নেতারা কী সিদ্ধান্ত নেবেন তাতে হস্তক্ষেপের অধিকার আমার হাতে নেই। আসানসোলের মানুষকে আমি কথা দিয়েছি, তৃণমূলের যে নেতারা অবৈধ কয়লা, লোহা, বালি পাচারের সঙ্গে যুক্ত তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।' এহেন পরিস্থিতিতে ভরা ডুবি হবে না তো জিতেন্দ্রর, প্রশ্ন উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। শুভেন্দ্র অধিকালীকে স্বাগত জানাতে ফুল নিয়ে বিজেপি রেডি থাকলেও ভোটের মুখে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এমন ইচ্ছা প্রকাশ জল গড়াবে অনেক দূর।