শনিবার  ৯ জানুয়ারি রাজ্যে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। গতবার ডায়মন্ড হারবার থাকলেও এবার বর্ধমান সফর করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। সেখানে জনবহুল শহরে রোড শো করার কথা রয়েছে জেপি নাড্ডার। কিন্তু এলাকা অত্যন্ত ঘিঞ্জি হওয়ায় বিজেপির পছন্দসই জায়গায় রোড শোয়ের অনুমতি দেয়নি পুলিশ। তার বদলে অন্য রুটে মিছিলের কথা বলা হয়েছে। পুলিশের অনুমাতি না মেলায় পরিকল্পনা বদলে অন্য রুট স্থির করে বিজেপি। উল্লেখ্য, এবারের সফরে কৃষক পরিবারে মধ্য়াহ্নভোজ সারবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। সভার আগে কাটোয়ার গৌরাঙ্গ বাড়িতে পুজো দেবেন তিনি। নাড্ডা সফরের জন্য মজুত ১৫ হাজার গোলাপ-আড়াই টন গাদা। 

 

 

আরও পড়ুন, 'হত্য়াকারীদের সরকারি চাকরি দিয়েছেন দিদি', নন্দীগ্রাম থেকে মমতাকে আক্রমণ কৈলাসের


এদিকে নিরাপত্তার কারণেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার বর্ধমান শহরে রোড শোয়ের রুট বদল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা পুলিশ প্রশাসন। তাই সেই নয়া রুটে রোড সো সফল করতে শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজ্য বিজেপি। দলের সর্বভারতীয় সভপতির সফরকে সফল করতে পূর্ব বর্ধমানে উপস্থিত কেন্দ্রীয় নের্তৃত্ব।কাটোয়ায় সভার পর বর্ধমান শহরে পদসভা করবেন জেপি নাড্ডা। আগের পরিকল্পনা বদলে এবার নাড্ডার রোড শো হওয়ার কথা জিটি রোডের বীরহাটা থেকে কার্জন গেট পর্যন্ত। যার দূরত্ব এক কিলোমিটারেরও কম। তা নিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। তিনি বলেন, ' পুলিশ-প্রশাসন সব জায়গায় মমতার কথা শুনে চলে। এসপিরা তো এসপি নন, তাঁরা তৃণমূলের জেলা সভাপতি। পুলিশ যদি জেপি নাড্ডার নিরাপত্তা দিতে না পারে। সেটা তাঁদের অপদার্থতা'।

 

 

আরও পড়ুন, 'ধর্ষিতাদের অভিযোগ এ রাজ্য়ের পুলিশ নেয় না', '১৮-র উত্তর ১৯ এ দেব' হুঁঙ্কার শুভেন্দু-দিলীপের


 এবারের সফরে কৃষক পরিবারে মধ্য়াহ্নভোজ সারবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। সভার আগে কাটোয়ার গৌরাঙ্গ বাড়িতে পুজো দেবে। সেখান থেকে বেরিয়ে মুস্থুলি গ্রামে কৃষক পরিবারে দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে খবর। বর্ধমানে জেপি নাড্ডার প্রস্তুতি সভা খতিয়ে দেখেন বিজেপির কেন্দ্রীন নেতা তথা রাজ্য পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন। জেপি নাড্ডার সভায় তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন তৃণমূলের কিছু নেতা।     উল্লেখ্য, বিধানসভা ভোটের আগে জেপি নাড্ডা ও অমিত শাহ প্রতি মাসেই বাংলা সফর করবেন বলে বিজেপির তরফ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল। ৯ জানুয়ারি জেপি নাড্ডা এলে ৩০ জানুয়ারি আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ওই দিন বনগাঁয়া মতুয়াদের সঙ্গে একটি সমাবেশ করতে পারেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখানে থাকবেন বিজেপি সাংসদ শান্তুনু ঠাকুরও। গত ১০ ডিসেম্বর রাজ্য সফরে এসে ডায়মন্ড হারবার যাওয়ার পথে জেপি নাড্ডার কনভয়ে হামলা হয়েছিল। তা নিয়ে রাজ্য-কেন্দ্র চাপানউতোর চলছেই। এই অবস্থায় বছরের প্রথমেই সফরে আসছেন জেপি নাড্ডা।