বেহালা পূর্ব ও বেহালা পশ্চিমে বিজেপির দুই প্রার্থী পায়েল ও শ্রাবন্তীর সমর্থনে রোড শো করার কথা ছিল অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীরা। কিন্তু মিছিল শুরুর আগেই বৃহস্পতিবার সকালেই প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় রোড শো করা যাবে না। অনুমোদন বাতিল হয়েছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে বেহালা পণশ্রী থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। তাঁরা জানিয়েছেন বিকেল পর্যন্ত তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন। প্রশাসন কিছুতেই এজাতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে না বলেও দাবি করা হয়েছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের তরফে। একই সঙ্গে এজাতীয় ঘটনা বরদাস্ত করা হবে না বলেও জানিয়েছে প্রতিবাদীরা। 

সূত্রের খবর প্রশাসনের এই ভূমিকায়  কিছুটা হলেও উষ্মা প্রকাশ করেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। তিনি জানিয়েছেন অনুমতি না পেলে তিনি রোডশো করবেন না।। এদিনও তিনি টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়-র হতে রোড শো করেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবার লড়াই করছেব রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা অরূপ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে। তবে মিঠুন চক্রবর্তী জানিয়েছেন, এদিন তিনি ৩৭টি রোড শো করেছেন বিজেপির প্রার্থীদের জন্য। তবে কী কারণে তাঁর বেহালার রোড শো বাতিল করা হয়েছে তা তিনি জানতে চান। তারপরই অভিনেতা বলেন, 'এতগুলি রোড শো করা হচ্ছে, কিন্তু কোথাও কি আমাদের তরফ থেকে এমন কোনও ঘটনা ঘটেছে যা হিংসা ছড়িয়ে দিয়েছে? হিংসাত্মক ঘটনা অন্য পক্ষ থেকেই হচ্ছে।' তিনি বলেন তাঁর দল আইন শৃঙ্খলায় কখনই সমস্যা তৈরি করে না বলে দাবি করেছেন তিনি। 

যশের সমর্থনে CAA হাতিয়ার, চণ্ডীতলা থেকে মমতাকে আক্রমণ যোগী আদিত্যনাথের ..

মন্দিরের মুক্তি, এই স্লোগানকেই তামিল ভোটে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছেন সদগুরু .

অন্যদিকে বেহালা পশ্চিমের প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস হেরে যাবে বলে আশঙ্কা করছে। আর সেই কারণেই বিজেপির প্রচারে বাধা তৈরি করছে। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তীর অনুষ্ঠান নিয়ে তাঁরা কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। দল ও স্থানীয় মানুষের সমর্থন তাঁর পক্ষে রয়েছে বলেও জানিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।  বিজেপি নাটক করছে। মিঠুনের রোডশো-র অনুমতি যদি প্রশাসন না দিত তাহলে বাবুল সুপ্রিয় সমর্থনে কী করে প্রচার করতেন অভিনেতা, প্রশ্ন তুলেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 

ভোটের মধ্যেই দেশের কোভিড-পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা, মোদীর ডাকা বৈঠক এড়িয়ে যেতে পারেন মমতা ...

তৃণমূলের পক্ষ থেকে  জানান হয়েছে  রোডশো-এর অনুমতি দেয় না প্রশাসন। সুবিধে অ্যাপের মাধ্যমে আবেদন করতে হয়। তার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি জানিয়েছে সেভাবেই আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু এদিন সকাল ৯টা নাগাদ বিজেপির পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, এলাকায় অন্য রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি থাকায় মিঠুন চক্রবর্তীর রোড শোর অনুমতি দেওয়া যাচ্ছে না।