'ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী না থাকলে তৃণমূলের ঘাসটাই জন্মাতো না', গড়বেতা থেকে ফের তৃণমূলকে আক্রমণ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। কটাক্ষ করলেন ছেড়ে আসা দলের কর্মীদেরকেও। 

আরও পড়ুন, মেগামিছিলে এলেন না শোভন-বৈশাখী, চরম অস্বস্থির মুখে রাজ্য BJP

 

 

 
সোমবার বিজেপির মেগামিছিলের দিনে গড়বেতা থেকে শুভেন্দু বলেন, 'আপনারা জানেন গড়বেতা শহরে প্রথম পদযাত্রাতে একগ্লাস জলও পায়নি। তারপরেই এই মাঠেই সভা করেছিলাম। আড়াই হাজার লোক হয়েছিল। এই লোকগুলিকে   আমি অক্সিজেন দিয়ে প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। আজ এই লোকগুলিই বাহাদুরি করছে। ভাঙা সাইকেল ছেড়ে স্করপিও গাড়ি, পোঁড়া বিড়ি ছেড়ে লম্বা লম্বা সিগারেট, দামী জামাকাপড়-চশমা, হাতে দামী ঘড়ি, বাচ্চার জন্মদিনে ৫ লাখ, মেয়ের বিয়ে দিতে গেলে হাফ কোটি টাকা খরচ করছে। তিনি আরও বলেন,' আমি বিজেপিতে যোগ দিতেই ওদের পায়ে কাঁটা ফুঁটে গিয়েছে, লাফাচ্ছে। ওদের ৩০ মিনিটের বক্তৃতায় ২৯ মিনিট আমার বিরুদ্ধেই ভাষণ থাকে।'

আরও পড়ুন, 'কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর রাজ্য়ে আসা কি অপরাধ', সৌরভকে দেখতে এসে 'বহিরাগত' ইস্যুতে তোপ অনুরাগের

 

 


তিনি আরও বলেন, 'ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী না থাকলে তৃণমূলের ঘাসটাই জন্মাতো না। আমি মনে করি বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লড়াইতে বারেবারে সঙ্গ দিয়েছে।' এবং হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন,' মোদী হাতে তুলে না দিলে এই রাজ্য এগোতে পারবে না।'