তৃণমূলের সভার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বৃহস্পতিবার কাঁথিতে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর রোড শো। বিজেপিতে যোগদানের পর নিজের গড়ে এচাই ছিল শুভেন্দুর প্রথম শক্তি প্রদর্শনের মঞ্চ। আর রাজনৈতিক মহলের মতে, শাসকদ দলের পাল্টা জবাব দেওয়ার শক্তি প্রদর্শনে ফুল মার্কস দিতেই হবে মেদিনীরপুরের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারীকে। এদিন কাঁথির মেচেদা বাইপাস থেকে শুরু হয় রোড শো। ৫ কিলোমিটার রোড-শো শেষে কাঁথি বাস স্ট্যান্ডে জনসভা করেন শুভেন্দু। রোড শো-র গোটা যাত্রাপথ কার্যত জনস্রোতে ভাসেন নবাগত বিজেপে নেতা। মিছিলে জনতার সমাগমেই স্পষ্ট মেদিনীপুরের এখন অটুট 'অধিকারী গড়'।

বুধবার সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে বিশ্বাস ঘাতক, মীরজাফর বলে আক্রমণ করেন তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম ও সৌগত রায়। একইসঙ্গে মেদিনীপুর কোনও পরিবারের একার গড় নয় বলেও কটাক্ষ করেছিলেন তৃণমূল নেতারা। নির্বাচনে পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূল ১৬-০ ফলাফল করবে বলেও ভবিষ্যৎবাণী করা হয় শাসক দলের সভা থেকে। বৃহস্পতিবার বিশাল রোড শো থেকে তার প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসকে পাল্টা জবাব দিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। কাঁথির মহামিছিল থেকে ২১-এর নির্বাচনের সুর বেধে দেওয়াই নয়, রাজ্যে ও দুই মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামে তৃণমূলের হাল কতটা খারাপ করে ছাড়বেন তিনি, সেই হুঙ্কারও ছাড়লেন মেদিনীপুরের বেতাজ বাদশা।

কাঁথির মহা মিছিল থেকে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'আগামি বিধান সভা নির্বাচনে রাজ্যে বিজেপি ২০০-র বেশি আসন পাবে।' পাশাপাশি পূর্ব মেদনীপুরের তৃণমূলের ১৬-০ রেজাল্ট ও  শুভেন্দুকে বিশ্বাসঘাতক বলার জবাবে বিজেপে নেতে বলেছেন,মেদনীপুরের ছেলেকে বিশ্বাসঘাতক বলা মানে মেদিনীপুরকে বিশ্বাসঘাতক বলা। তাই নির্বাচনে দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম মিলে মোট ৩৫টি আসনেই বিজেপি জিতবে।' তৃণমূল ৩৫-০ হবে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। পাশপাশি রাজ্য জুড়ে আগামি দিনে অনেক চমক রয়েছে বলেও কাঁথি মহামিছিল থেকে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধকারী।