কোভিডে আক্রান্ত হলেন এবার ব্রাত্য বসু। উল্লেখ্য, একুশের নির্বাচন চলাকালীনই একের পর এক প্রার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কেউবা প্রাণ হারিয়েছেন। আর এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন ব্রাত্য বসু। রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই হোম আইসোলেশনে গিয়েছেন তিনি। 

আরও পড়ুন, রাজ্য়ে একের পর এক BJP কার্যকর্তা খুন, 'আমরা হিংসা পছন্দ করি না', বিধানসভায় বার্তা মমতার  

একদিকে একুশের ভোটচ, অন্য়দিকে কোভিডের দাপট। তাই প্রায়  সকলেই  ঝুঁকি নিয়ে এবছর সভা-মিছিল করেছেন । এরপর কোভিড আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতেই কমিশন মিটিং-মিছিল-জনসভায় নিষেধাজ্ঞা জারি করে। যদিও প্রায় গত দুমাস ধরে নির্বাচনী প্রচার এবং দলীয় দায়িত্বে কাজে ব্য়স্ত ছিলেন ব্রাত্য। গত মঙ্গলবারেরই তিনি কোভিড টেস্ট করিয়েছিলেন। এরপরেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর মঙ্গলবার থেকেই হোম আইসোলেশনে গিয়েছেন তিনি। এদিকে ভোটে জয়ী হয়ে রাজ্যে তৃতীয়বারের জন্য সরকার নিশ্চিত করে তৃণমূল। বিজয়ী প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন ব্রাত্য় বসুও। দমদম আসন থেকে তৃতীয়বার নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তবে এই পরিস্থিতিতে জেলার ৩২ জন বিধায়ক শপথ নিলেও ব্রাত্য বসু বিধানসভায় যেতে পারেননি। এনিয়ে তিনি জানিয়েছেন, সুস্থ হয়েই তারপর শপথগ্রহণ করবেন।

আরও দেখুন, কোভিডে ফের ১০০ উপরে মৃত্যু বাংলায়, বেসরকারি হাসপাতালকে টিকা দেওয়া বন্ধ করল রাজ্য সরকার 

 প্রসঙ্গত, রাজ্যে ব্রাত্য বসুকে ধরে একাধিক প্রার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে কামারহাটির প্রার্থী মদন মিত্র, যাদবপুরের সিপিএম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তীও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এদিকে খড়দা, জঙ্গিরপুর, শামসেরগঞ্জে একুশের নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে দাঁড়িয়ে শেষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভোট চলাকালীন প্রাণ হারিয়েছেন। উল্লেখ্য, প্রথম দফা ভোটে যেখানে করোনার আক্রান্তের একদিনের সংখ্যা হাজেরের মধ্যে ঘোরা ফেরা করত, সেই সংখ্যায় এখন ১৮ পেরিয়ে ১৯ হাজারে পৌছেছে। প্রতিদিনই মতৃত্যু হচ্ছে ১০০ জনের উপরে। 

আরও দেখুন, Live Covid 19- 'কেন বাংলাকে ভ্যাকসিন-অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে না', প্রশ্ন মমতার, টিকা চেয়ে মোদীকে চিঠি অধীরের