একুশের নির্বাচনের একেবারে দোরগড়ায় রাজ্যে কয়লা-গরুপাচার-সারদা সহ একাধিক কাণ্ডে গতি এনেছে সিবিআই-ইডি। এবার আইকোর চিটফান্ডকাণ্ডে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নোটিশ পাঠিয়ে তলব করল সিবিআই। আগামী সপ্তাহেই তাঁকে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 আরও পড়ুন, মমতার উপর 'হামলা' ইস্যুর রিপোর্টে সন্তুষ্ট নয় কমিশন, মুখ্যসচিবের কাছে ফের রিপোর্ট তলব 

 

এদিকে আইকোরকাণ্ডে  সিবিআই নোটিশ প্রসঙ্গে  চিঠি পাইনি বলে দাবি করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এরপরে তিনি আরও বললেন, আমি অনেক টাকার চাকরি ছেড়ে রাজনীতিতে এসেছি।  এভাবে আমার গায়ে কালি লাগানো যাবে না। আমায় ইডি বা যেই ডাকুক যাবো। আমি মন্ত্রী হিসেবে কোথাও আমন্ত্রিত হলেই যেতে পারি। তাতে কী প্রমাণ হয় বলে প্রশ্ন তোলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। উল্লেখ্য তবে এই প্রথমবার নয়, আইকোর চিটফান্ডকাণ্ডে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আগেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। 
তবে সিবিআই সূত্রে খবর, ১৫ জুলাই ভোটের প্রচারে ব্যস্ত থাকায় নিজাম প্যালাসে হাজিরা দিতে পারবেন না রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেক্ষেত্রে অন্যকোনও দিন সুবিধামতো জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন সিবিআই আধিকারিকরা। আইকোরের একটি অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়কে। আইকোর মামলার তদন্তে একটি অ্যাকাউন্টের খোঁজ মিলেছে বলে সূত্রের খবর। সেই সূত্র ধরেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।
 

আরও পড়ুন, আগামী ২-৩ ঘন্টার মধ্য়েই বজ্রবিদ্যুত সহ বৃষ্টির সতর্কতা বাংলায়, কী বলছে হাওয়া অফিস 

 

অপরদিকে বুধবার আইকোরকাণ্ডে ওই তৃণমূলের নেতা মানস ভুইয়াকে নোটিশ পাঠিয়েছে সিবিআই। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে এবার সবং থেকে ভোটে লড়ছেন তিনি। এদিকে বিধানসভা নির্বাচনের একেবারে কাছে দাঁড়িয়ে একেরপর এক নেতা-মন্ত্রীকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ডেকে পাঠানোর পিছনে রাজনৈতিক অভিসন্ধি রয়েছে বলে ধারণা তৃণমূলের নের্তৃত্বের।