নির্বাচন ঘোষণার আগে থেকেই রাজ্যে আসতে শুরু করেছিল কেন্দ্রীয় বাহিনি। জায়গায় জায়গায় শুরু হয়েছিল রুট মার্চও। এবার জেলায় জেলায় পৌছে গেল কেন্দ্রীয় বাহিনি। মুর্শিদাবাদ জেলাতে পা রাখল কেন্দ্রীয় বাহিনির জওয়ানরা। মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিৎ করতে ও সুষ্ঠুভাবে ভোট করতে, মানুষের মন থেকে ভয় দূর করতে শুরু হয়েছে টহলও। জেলার টাউন থেকে গ্রাম সব জায়াগায় রুট মার্চ করবে সেন্ট্রাল ফোর্স। যা জেলার ভোটের পারদ অনেকটাই বাড়িয়ে দিয়েছে। 

সোমবার ভারত বাংলা সীমান্ত লাগোয়া মুর্শিদাবাদ জেলায়  প্রথম তিন কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী পৌছল। জানা গিয়েছে জেলার অন্য়ান্য প্রান্তে আরও দুই কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনি পৌছে গিয়েছে।  প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বাহিনি প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়েও ভোটারদের সঙ্গে কথা বলবে। জেলা পুলিসের সঙ্গে তারা ঘুরবে। জেলার সদর শহর বহরমপুর শহরেও তারা রুটমার্চ করবে। বানজেটিয়া কর্মতীর্থে তাদের থাকার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। সকলেই যাতে নিশ্চিন্তে ভোট দিতে পারেন সেই কারণেই এত আগে থেকে বাহিনি।

প্রসঙ্গত এবাপ বিধানসভা ভোটে রাজ্য জুড়ে বেড়েথে বুথের সংখ্যা। সঠিক ভোট ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখেই বুথের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। মুর্শিদাবাদ জেলায় এবার বুথের সংখ্যা বেড়েছে। প্রতিটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়ার দাবিতে সরব হয়েছে বিরোধীরা। মুর্শিদাবাদের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তন্ময় সরকার জানিয়েছেন,'নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা করতেই পাঁচ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনীর আগমন। আমরা সকলেই সেই লক্ষ্যে কাজ করছি'।