বাংলার সকলকে বিনামূল্য়ে করোনা টিকা দেওয়ার কথা সোমবার নবান্নে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। তিনি আরও বলেছেন, আশা মেয়েরা অনেক কাজ করে। কিন্তু ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানিয়েছেন, দেশের ৬৫ শতাংশ টিকা বাইরে চলে গিয়েছে। মানুষ এখন বিপদে। একাবের লকডাউন না করে লকডাউনের বিধি তৈরি করা দরকার।

আরও পড়ুন, কোভিডের জেরে মুহূর্তেই শেষ ৪৩ মন্ত্রীর শপথ, রাজভবনে বেজে উঠল জাতীয় সঙ্গীত  

এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেছেন, প্রতিটি মেডিক্যাল কলেজকে অক্সিজেনে সেন্টার করা নির্দেশ দিচ্ছি। এখন ৩০ হাজার বেড হয়ে গিয়েছে। বহু কর্পোরেট সেক্টর আমাদের সাহায্য করেছে। উত্তীর্ণ, কিশোর ভারতী স্টেডিয়াম, সেন্ট জেভিয়ার্স সেফ হোম এবং ফিল্ড হাসপাতাল হয়েছে। বহু হোটেল বিনামূল্যে খাবার দিচ্ছে। আমরা চাইবো কর্পোরেটরা আমাদের সাহায্য করুক। সেই টাকায় আমরা বেড বাড়াতে পারব। গোটা টাকাটাই অডিট হবে। অনেকেই ইতিমধ্য়ে অক্সিজেন দিয়েছে। আমাদের প্রয়োজন ৫৫০ মেট্রিক টন অক্সিজেন। তিন কোটি ভ্য়াকসিন চেয়েছিলাম। কোভিড সরঞ্জামে জিএসটি নেওয়া উচিত নয়। সরকার ৩০ হাজার কোটি টাকা খরচ করলেই ভ্যাকসিন বিনামূল্যে দিতে পারে।'

আরও পড়ুন, 'মেয়েরা শুধু হেঁশেল সামলায় না- সব কাজ করতে পারে', মমতার মন্ত্রিসভায় জঙ্গলমহলের তিন মহিলা 

 

অপরদিকে মমতা বলেছেন, 'এই জয় উন্নয়ন, শান্তি, সম্প্রীতির জয়। আমরা বিভেদ চাই না। আমরা ঐক্য চাই। এই বার্তাই মানুষের কাছে পৌছে দিতে চাই। আমরা মনে করি আমরা ৯৫ ভাগ মানুষকে উন্নয়েনের আওতায় এনে দিতে পেরেছিলাম। দুয়ারে রেশন শুরু করে সব কাজই একটু একটু করে করব। তবে অগ্রাধিকার করোনাকেই।'