কোকেনকাণ্ডে বড় সড় অগ্রগতি। বিজেপি নেতা রাকেশ সিং-এর বিরুদ্ধে ফের বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন ধৃত বিজেপির যুব মোর্চার নেত্রী পামেলা গোস্বামী। বৃহস্পতিবার তিনি অভিযোগ করেছেন, তাঁকে 'অন্যচোখে' দেখতে শুরু করেছিলেন রাকেশ। কিন্তু, পামেলা পাত্তা না দেওয়ার খেপে উঠেছিলেন তিনি। আর সেই রাগ থেকেই তাঁকে কোকেন কাণ্ডে ফাঁসিয়েছেন দক্ষিণ কলকাতার বিজেপি নেতা, এমনটাই দাবি যুব নেত্রীর।

এদিন পামেলাকে আদালতে তোলে কলকাতা পুলিশের মাদক বিরোধী শাখা। তার আগেই পুলিশের গাড়িতে বসেই সাংবাদিকদের সামনে পামেলা গোস্বামী দাবি করেন, রাকেশ তাঁকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন। তারপর থেকেই পামেলা, রাকেশকে এড়িয়ে যেতে শুরু করেছিলেন। তাতেই রাকেশ আগ্রাসী হয়ে পড়েন। তাঁকে শারীরিক নিগ্রহও করেছেন রাকেশ, বলে অভিযোগ করেছেন পামেলা।

তিনি আরও জানান, চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই তিনি বুঝতে পারছিলেন তাঁকে অস্ত্র অথবা মাদক মামলায় ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করছেন রাকেশ সিং। পামেলার দাবি, তিনি কোকেন সম্পর্কে কিছু জানেন না। অমৃত রাজ সিং নামে রাকেশ সিং-এর এক সঙ্গীই তাঁর গ্যাগ ও গাড়িতে কোকেন রেখে দিয়েছিল। এক পুলিশ কর্তার বিরুদ্ধেও তিনি ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগ করেছেন।

এদিন আদালত পামেলা গোস্বামীকে ৪ মার্চ পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। পামেলার আইনজীবী আদালতে জামিনের আবেদন করলেও কলকাতা পুলিশ তাকে হেফাজতে চায়। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, পামেলা নিজেই পুলিশ হেফাজতে থাকতে চান। আদালতের বাইরে তিনি জানিয়েছেন, পুলিশের তদন্তে তিনি সন্তুষ্ট। ভারতের সংবিধান ও আইন ব্যবস্থার উপর তাঁর আস্থা রয়েছে।