নিজের গড় মুর্শিদাবাদেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে চাপ ক্রমশ বাড়ছে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর উপর। প্রার্থী পদ নিয়ে কংগ্রেস কর্মীদের বিদ্রোহে রীতিমতো জেরবার মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব। বছর দুয়েকক আগে যে ঘটনা ভাবা পর্যন্ত  যেত না, ২০২১-এর নির্বাচনের আগে ঘটছে সেই অবাক করা ঘটনা। যা দেখে রীতিমত হতভম্ব হয়ে পড়ছেন স্বয়ং অধীর চৌধুরীও। ভোটের আগে যেই ঘটনা রীতিমত উদ্বেগ বাড়িয়েছে কংগ্রেস নেতৃত্বের।

মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি বিধানসভা কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন হাসানুজ্জামান।  দলের একটা বড় অংশ স্থানীয় এক নেতাকে প্রার্থী হিসেবে চাইছিল। তা না হওয়াতে বিক্ষোভ দানা বাধছিল দলের অন্দরে। মঙ্গলবার প্রার্থী বদলের দাবিতে  দলের নেতা ও কর্মীরা একযোগে রাস্তায় নেমে বিক্ষভ দেখান। দলীয় পতাকা নিয়েই চলে বিক্ষোভ কর্মসূচি। যার ফলে দলের অন্দরের গোষ্ঠীকোন্দল আরও একবার প্রকাশ্যে চলে এল অধীর গড়ে। প্রার্থী বদল না হলে আগামি দিনে আরও বড় জমায়েতেপ হুশিয়ারীও দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারী কংগ্রেস সমর্থকদের বক্তব্য,'কংগ্রেস দলে থেকে বহিরাগত প্রার্থী মানা হবে না। ভূমিপুত্র প্রার্থী চাই। তা না হলে তারা নির্দল প্রার্থী দেওয়া হবে'। সিদ্ধান্ত বদলের দাবিও জানিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। কয়েকদিন আগেই একই রকমভাবে সূতি ও বড়ঞা বিধানসভা কেন্দ্রেও বিক্ষোভ হয়েছে। দলের একটা বড় অংশ নির্দল প্রার্থী দেওয়ার তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছে। একের পর এক বিধানসভা কেন্দ্রে এভাবে বিদ্রোহ হতে শুরু করায় কংগ্রেসের স্নায়ুচাপ বেড়েছে।