বিজেপি নেতা রাকেশ সিংয়ের ওয়াটগঞ্জ থানা এলাকার বাড়িতে বিশাল পুলিস বাহিনির তল্লাশি অভিযান ঘিরে তুমুল উত্তেজনা।  পুলিস সূত্রে খবর, নারকোটিক্স মামলার তদন্তে ব়াকেশ সিংয়ের বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। সেই সময় দরজায় রাকেশ পরিবারের সদস্যরা প্রধানত বিজেপি নেতার ছেলে পুলিস আধিকারিকদের বাধা দেন। তল্লাশির জন্য প্রয়োজনীয় নথি দেখাতে বলেন। কিন্তু রকেশ সিংয়ের ছেলের অভিযোগ তল্লাশির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজ দেখাতে পারেনি পুলিস আধিকারিকরা। 

পুলিসের তরফ থেকেও পাল্টা অভিযোগ করা হয়, রাকেশ সিংয়ের বাড়িতে ঢোকার সময় তাদের বাধা দেয় রাকেশ সিংয়ের নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন সিআইএসএফ জওয়ানরা।  দরজা বন্ধ করে দেওয়ারও অভিযোগ ওঠে সিআইএসএফের বিরুদ্ধে। দরজা না খুললে সিআইএসএফের বিরুদ্ধে মামলা করার কথাও বলা হয় পুলিসের তরফে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই রাকেশ সিংয়ের বাড়ির তিনজন পরিচারককে গ্রেফতার করেছে পুলিস। যদিও নথি ছাড়া ঢুকতে দিতে না চাইলেও, পুলিস চাইলে দরজা ভেঙে ঢুকতে পারে বলে জানান রাকেশ সিংয়ের ছেলে। যার ফলে দু-পক্ষের বাদানুবাদে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

প্রসঙ্গত মাদক কাণ্ডে বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামী গ্রেফতার হওয়ার পরই, রাকেশ সিংয়ের নাম নিয়েছিলেন তিনি। সেই মামলায় মঙ্গলবার লালবাজারে হাজিরার কথা ছিল বিজেপি নেতার। কিন্তু দিল্লি যাওয়ার কারণে আজ হাজিরা দিতে পারবেন না বলে জানিয়েছিলেন রাকেশ সিং। ২৫ তারিখের পর যে কোনও দিন তিনি কেন্দ্রীয় বাহিনি নিয়ে লালবাজারে যাওয়ার কতা জানিয়েছিলেন বিজেপি নেতা। সঙ্গে অভিযোগ করেছিলেন রাজ্য পুলিসের উপর তার ভরসা নেই, সেই কারণেই কেন্দ্রীয় বাহিনি নিয়ে লালবাজারে যাবেন তিনি। আজ হাজিরা না দেওয়াতেই তার বাড়িতে পৌছে যায় বিশাল পুলিস বাহিনি। ফলে নির্বাচনের আগে একদিকে কয়লা কাণ্ডে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে জেরা সিবিআইয়ের, অপরদিকে মাদক মামলায় বিজেপি নেতার বাড়িতে পুলিস অভিযান গিরে সরগরম রাজ্য রাজনীতি।