বিশ্বনাথ দাস, হাওড়া- ভোটের আগে বাংলায় নয়া উদ্যোগ নিল ভারতীয় রেল। লোকাল ট্রেনের যাত্রীদের একঘিয়েমি কাটাতে বিশেষ পদক্ষেপ করা হয়েছে। ট্রেনের কামরায় যাত্রীদের একঘিয়েমি কাটাতে রবীন্দ্র সঙ্গীত শোনানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পূর্ব রেলের ৮টি কামরায় ইতিমধ্যেই পরীক্ষামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যাত্রীদের সুবিধার্থে রবীন্দ্র সঙ্গীতের পাশাপাশি যন্ত্র সঙ্গীতের কথাও শোনানো হবে জানিয়েছে পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন-'পশ্চিমবঙ্গ আতঙ্কবাদীদের সেফ হোম, এখানে বসে প্ল্যান করে', মমতার প্রশাসনকে তোপ সায়ন্তনের

নির্বাচনের আগে রেল কেন এই উদ্যোগ নিল? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। ২০১১ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পালাবদলের মাধ্যমে রাজ্যে ক্ষমতায় আসেন। তারপর ট্রাফিক পুলিশ থেকে রাস্তার মোড়ে মোড়ে রবীন্দ্র সংগীত বাজানো চালু হয়। রাজ্য সমবায়মন্ত্রী অরূপ রায়ের অভিযোগ, ''বিজেপি সরকার মমতাদিকে নকল করছে। যা মানুষ ধরে ফেলবে। এতে মমতাদির নম্বর বাড়বে। সবটাই ভোটের জন্য''। তিনি মন্তব্য করেন অরূপ রায়। 

আরও পড়ুন-জঙ্গিদের তালিকায় রাজ্যের ৫ স্টেশন, প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে হামলার আশঙ্কায় জোর তল্লাশি

অন্যদিকে, হাওড়া জেলা বিজেপির সভাপতি সুরজিৎ সাহা বলেন, ''এটা রেলের  ভালো কাজ। তৃণমূল কংগ্রেস সবকিছুর মধ্যেই রাজনীতি দেখে। কেন্দ্রের একাধিক জনমুখী প্রকল্প তৃণমূল সরকার নিজেদের বলে চালাচ্ছে। মানুষ তা বোঝেন''। মূলত লোকাল ট্রেনের প্রতিটা কামরায় যে অ্যানাউন্সইং সিস্টেম আছে তাতেই ওই গান বাজবে। এই পরিকল্পনার মূল উদ্দেশ্য যাত্রীদের মনোরঞ্জন এবং দীর্ঘ ট্রেন যাত্রা আরও সুখকর করা। এমনটাই জানিয়েছেন ডিআরএম। তিনি আরও বলেন,''ধীরে ধীরে  সব লোকাল ট্রেনের কামরায় রবীন্দ্র সঙ্গীত বাজবে''। বাঙালি সংস্কৃতিকে তুলে ধরার এই চেষ্টাকে যাত্রীরা স্বাগত জানিয়েছেন।