নাড্ডা সফরে হামলাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই রাজ্যের মুখ্য়সচিব এবং ডিজিপিকে তলব করেছিল কেন্দ্র। শুক্রবার মুখ্যসচিব চিঠি দিয়ে সেই বৈঠক থেকে অব্যাহতির অনুরোধ করেন। শনিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লাকে এই বিষয়ে পাল্টা চিঠি দিলেন লোকসভায় তৃণমূলের মুখ্য সচেতক কল্যান বন্দ্য়োপাধ্যায়।

 

 'মনে হচ্ছে এর পিছনে কোনও রাজনৈতিক অভিসন্ধি আছে' 

কল্যান বন্দ্য়োপাধ্যায় তাঁর চিঠিতে লিখেছেন, সংবিধান অনুসারে আইন-শৃঙ্খলা রাজ্যের বিষয়। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে আলোচনার জন্য কীভাবে রাজ্য়ের দুই অফিসারকে তলব করা হয়েছে।  রাজ্য তালিকাভুক্ত কোনও বিষয়ে ভারতীয় সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী কি হস্তক্ষেপ করা যায়, বলে প্রশ্ন তোলেন তিনি। আরও বলেন,  'মনে হচ্ছে এর পিছনে কোনও রাজনৈতিক অভিসন্ধি আছে।' বিজেপির পাশপাশি আক্রমণ করে তৃণমূলও।

 

'এটা খুবই লজ্জাজনক'

 

অপরদিকে তিনি বলেন নাড্ডার কনভয়ে দুষ্কৃতি রাকেশ সিংহ এর থাকাটাইস ইন্ধন যুগিয়েছে। তাঁর দাবি, রাকেশ খিদিরপুরের বাসিন্দা। এর বিরুদ্ধে ৫৯ খানা ফৌজদারি মামলা চলছে। অজয় ভাল্লাকে লেখা চিঠিতে রাকেশ সিংহের প্রসঙ্গও তোলেন তিনি। পাশাপশি তিনি আরও বলেন,' মনে হচ্ছে এই চিঠি লেখা হয়েছে মন্ত্রীর নির্দেশে, যে ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য় নিয়েই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রশাসনে কর্মরত দুই অফিসারকে জোর করে আলোচনায় বসার জন্য তলব করা হয়েছে।একদম শেষে তিনি ধীক্কার জানিয়ে লেখেন, 'কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা অমিত শাহের কথা মতো আপনার আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছেন, এটা খুবই লজ্জাজনক'।