হুইল চেয়ারে বসে আছেন অসহায় মমমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পা তাঁর ভাঙা। এদিকে তাঁর দেহরক্ষীর দিকে তেড়ে এল পেল্লায় মাপের এক ষাঁড়। তারপরই মুখ ঘুরিয়ে আবার তেড়ে গেল ঘাসফুল পতাকাধারী সমর্থকদের দিকে। তাকে সামলাতে তখন হিমশিম খাচ্ছেন পুলিশ, নিরাপত্তা কর্মী থেকে স্থানীয় তৃণমূল সমর্থকরা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য বড় কোনও অঘটন ঘটেনি। কিন্তু, বেশ খানিকক্ষণের জন্য থেমে রইল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই রোড শো। একেবারে লণ্ডভণ্ড অবস্থা।

সময়টা মোটেই ভালো যাচ্ছে না বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। শনিবার বিকালে হাওড়া মধ্য ও শিবপুরের তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে হাওড়া জেলার কাজিপাড়া থেকে সালকিয়া পর্যন্ত রোড শো করছিলেন মমতা। বিপুল জনসমাগম হয় সেই রোড শো-তে। রাস্তার দুইপাশ থেকে বিভিন্ন বয়সের মানুষ মমতাকে দেখার জন্য ভিড় করেছিলেন। হওয়া সেই রোড শো-তে মানুষের ভিড় দেখে বেশ খোশ মেজাজে ছিলেন তৃণমূল নেত্রী। কিন্তু, মিছিল শেষ হওয়ার মুখেই ঘটল অঘটন।

আচমকাই, তৃণমূল কংগ্রেসের সেই মিছিলে ঢুকে পড়ে খ্যাপা ষাঁড়টি। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ওই ষাঁড়টি রোজই ওই রাস্তা দিয়ে হেঁটে যায়। এদিন তৃণমূলের মিছিলে বিপুল জনসমাগম, এবং তাদের মুহূর্মুহু 'খেলা হবে', 'বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়' ইত্যাদি স্লোগানে সে বিভ্রান্ত হয়ে যায়। আর তারপরই মিছিলে হাঁটা মানুষদের তাড়া করে সে। পুলিশ এবং মমতার দেহরক্ষীরা কিন্তু শেষ পর্যন্ত ষাঁড়কে তাড়াতে পারেননি। স্থানীয়রাই শেষ পর্যন্ত রাস্তায় নেমে ষাঁড়টিকে সরিয়ে দেয়।  

এতেই কিছুক্ষণের জন্য মমতার রোডশোতে একেবারে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হল। তবে শেষ পর্যন্ত ভালোভাবেই শেষ হয় এই রোডশো। জানা গিয়েছে, মিছিলে যে বিপুল জনসমাগম হয়েছিল, তাতে আপ্লুত তৃণমূল নেত্রী, ষাঁড়ের এই বিঘ্ন ঘটানোকে একেবারেই পাত্তা দিচ্ছেন না।