কোচবিহার থেকে কালচিনি- সড়ক পথে দূরত্ব মাত্র ৫০ কিলোমিটার। আর এই ৫০ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থান করে দেশের দুই শীর্ষ নেতৃত্ব একে অপরকে নিশানা করে করে চলেছেন। কোচবিহার থেকে মোদী যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোলাবাজি সিন্ডিকেট নিয়ে নিশানা করে চলছেন তখন কালচিনির জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরব হয়েছেন রাজ্যে ভোটের দিন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে। 


আলিপুরদুয়ারের কালচিনির জনসভা থেকে তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপায়দ্যায় আরামবাদে দলীয় প্রার্থী সুজাতা মণ্ডলের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন বিজেপি কর্নীরা ভোট কেন্দ্র দখল করেছেন। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ও দলীয় কর্মী সমর্থকদের ভোট কেন্দ্রের দিকে যেতে দেওয়া হচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেন আরামবাগে তাঁর দলের প্রার্থী সুজাতা মণ্ডলকে ভোট কেন্দ্রের ধারেকাছে যেতে দিচ্ছে না তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়েছে বলেও  অভিযোগ করেন তিনি। সুজাত যখন বুথের কাছে গিয়েছিল তখনই গেরুয়া শিবির হামলা চালায় বলেওঅভিযোগ করেন তিনি। খানাকুলেও দলীয় প্রার্থীর ওপর হামলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর অপব্যবহার করা হচ্ছে, নির্বাচন কমিশনকে টুইট মমতার

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী সিপিএমের প্রাক্তনী, যাদবপুরের দিকে তাকিয়ে সারা রাজ্য...

এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন হামলা ও হিংসার বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেস কমপক্ষে ১০০টি অভিযোগ দায়ের করেছে। নির্বাচন কমিশনকে পুরো বিষয়গুলি জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি বলেও অভিযোগ করেন মমতা। তিনি আরও বলেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে দিল্লিতে বসে বিজেপি চক্রান্ত করছে। আর বিজেপিকে প্রতিহত করতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বুথ দখল থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন নির্বাচন শুরুর পর থেকে এপর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসের চার জন নেতা কর্মীকে খুন করা হয়েছে। কিন্তু এই হিংসার বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। তবে বিজেপি এভাবে তৃণমূলকে ভয় দেখাতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।