নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অর্মত্য সেনের বাড়ি জমি চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলেছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। জমি জবরদখল করে রাখার অভিযোগ তুলেছে বিশ্বভারতী। এই অবস্থায় নোবেলজয়ীর পাশে থাকার বার্তা দিয়ে অর্মত্য সেনকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। বিশ্বভারতীর আচরনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন-'প্রয়োজনে রক্তবন্যা বইবে, কিন্তু, বাংলায় এনআরসি হতে দেব না', বিজেপিকে হুঙ্কার অনুব্রত মণ্ডলের

অর্মত্য সেনকে নিয়ে বিশ্বভারতীর অভিযোগ নিয়ে নবান্ন থেকে আগেই সরব হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার তাঁকে সরাসরি চিঠিও দিলেন মমতা। চিঠিতে তিনি লেখেন, 'প্রতিচী' নিয়ে যে বিশ্বভারতী জমি দখলের অভিযোগ করেছেন তাতে তিনি ক্ষুব্ধ। নোবেলজয়ীর সঙ্গে আচরনের বিরোধিতায় তিনি তাঁর পাশে রয়েছেন। অর্মত্য সেনের দাদু ক্ষিতিমোহন সেন প্রায় আট দশক ধরে সেখানে বাড়ি করে বসবাস শুরু করেন। সেইসব পারিবারিক ইতিহাসের কথা সবই উল্লেখ করেন মমতা। 

আরও পড়ুন-'সিঙ্গুরে শিল্প অনেকটা বলদে দুধ দেওয়ার মত, ঘোড়াতেও হাঁসবে', মমতাকে কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের

তিনি আরও বলেন, ''আপনার প্রতি বিশ্বভারতীর অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। দেশের ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে আপনার এই লড়াইয়ের সর্বোতভাবে আছি আমি, কারণ তাঁদের এই আচরন আমাকে ব্যথিত করেছে''। অন্যদিকে, বিশ্বভারতী সূত্রে খবর, বিশ্বভারতীর বহু জমি নিজেদের নামে রেকর্ড নেই। লিজ দেওয়ার পর, বহু বছর ধরে, সেখানে যাঁদের বসবাস। ভূমি দফতরের নিয়ম অনুযায়ী তাঁদের নামেই জমি রেজিস্ট্রেশন আছে।