নারায়ণগড়ে তৃণমূল প্রার্থী সূর্যকান্ত অট্টকে অভিনত কায়দায় সংবর্ধনা দিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিশেষত এক মহিলা। স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সূর্যকান্ত অট্টর সমর্থনে প্রচারে এসেছিলেন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের এই প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার সভা থেকে ফুটবল সভায় উপস্থিত জনতার দিকে। বলেছিলেন "খেলা হোক" । সেই ফুটবল কুড়িয়ে রেখেছিল স্থানীয় এক আদিবাসী মহিলা আশু হেমব্রম। এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের সক্রিয় কর্মী বলেই পরিচিত। এদিন সেই ফুটবলই সংবর্ধনায় সভায় স্থানীয় মহিলা তুলেদেন দলের জয়ী প্রার্থী সূর্যকান্ত অট্টর হাতে। সূর্যকান্ত অট্ট বলেন-'এই ধরনের উপহার সত্যিই মন ছুয়ে যায়।' তিনি বলেন এই উপহারের জন্য তিনি ধন্যবাদও জানিয়েছেন তাঁর দলীয় সতীর্থকে। সংবর্ধনায় পাওয়া এই উপহার তাঁর কাছে  কাছে অনেক মূল্যবান। স্থানীয় মানুষদের ভালোবাসাও তাঁর কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেও জানিয়েছেন তিনি।

করোনাভাইরাস আদৃশ্য শত্রু, এই লড়াইয়ে জিততেই হবে দেশকে বললেন 'প্রধান সেবক' মোদী ...

নারায়ণগড় একটা সময় সিপিএমনের খাস তালুক বলে পরিচিয় ছিল। এখান থেকে গতবারও প্রার্থী হয়েছিলেন সূর্যকান্ত মিশ্র। কিন্তু তুনি হেরে যান। বর্তমানে বিজেপির দাপট বেড়েছে এই এলাকায়। বিরোধী প্রার্থী হিসেসে এখানে ছিলেন বিজেপির রামপ্রসাদ গিরি ও সিপিএম-এর তাপস সিনহা।বিজেপির প্রার্থীরমাপ্রসাদ গিরি ছিলেন নেত্রীর অনুগত। তৃণমূল থেকে দল বদল করে তিনি বিজেপিতে গিয়েছিলেন।  সিপিআইএমের পক্ষ থেকে ছিলেন তাপস সিনহা দীর্ঘ দিন ধরেই সক্রিয় বাম কর্মী। তৃণমূলের পক্ষ থেকে প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী ধরা হয়েছিল বিজেপির প্রার্থী রমাপ্রসাদ গিরি কেই। রমাপ্রসাদ গিরির সমর্থনে কেন্দ্রের বড় বড় নেতারা সহ যোগী আদিত্যনাথ পর্যন্ত প্রচার করে গিয়েছিলেন। পালটা জবাবী সভা করেছিলেন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সভা থেকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন-"বিজেপিকে একটি ভোটও না। ওদের বিরুদ্ধে খেলা হোক।" প্রতীকী হিসেবে সভা মঞ্চ থেকে ফুটবল ছুড়ে দিয়ে ছিলেন উপস্থিত জনসমাবেশের দিকে লক্ষ্য করে। সেদিনের সেই ফুটবল লুফে কুড়িয়ে রেখেছিলেন আদিবাসী মহিলা তৃণমূল কর্মী আশু হেমব্রম। 

করোনা আক্রান্তের মানসিক চাপ কমাবে ডার্ক চকোলেট, স্বাস্থ্য মন্ত্রীর নিদান নিয়ে বিতর্ক .

এক অধ্যায়ের অবসান, প্রয়াত টাইমস গ্রুপের চেয়ারপার্সন ইন্দু জৈন ...

যদিও ভোটের লড়াইয়ে এখানে জোর টক্কর হয়েছিল তৃণমূল ও সিপিএমের মধ্যে। নির্বাচনী ফলাফলে তৃণমূলের প্রার্থী সূর্যকান্ত অট্ট জয়লাভ করেন । নিকটতম সিপিআইএমের প্রার্থী তাপস সিনহার থেকে ২৬৮২ ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেন। নারায়ণগড় এর রানীসরাই অঞ্চল তৃণমূলের পক্ষ থেকে শুক্রবার বিজয়ী সূর্য অট্টকে সংবর্ধনা দেওয়ার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই মুখ্যমন্ত্রীর ছোঁড়া ফুটবল উপহার দেন বিজয়ী তৃণমূল প্রার্থীকে।