প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন করকোনাভাইরাস একটি অদৃশ্য শত্রু। আর এই শক্রকে পরাজিত করতে তাঁর সরকার কঠোর পরিশ্রম করছে। কিন্তু কোভিডের কারণে দেশের জনগণের মানুষের নাজেহাল অবস্থা হচ্ছে। কার্যত সেই কথা স্বীকার করে প্রধাননন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন দেশের জনগণের বেদনা ও কষ্টের প্রতি সহানুভূতি জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন করোনা মহামারির জন্য অনেকেই তাঁদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন। দেশের মানুষের দুঃখ তিনি অনুভব করছেন বলেও জানিয়েছেন প্রাধনমন্ত্রী। তিনি  বলেন ' আপনার প্রধান সেবক হিসেবে আমি আপনার কষ্ঠ আর অনুভূতি ভাগ করে নিচ্ছি।'

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন ১০০ বছর পর এই মহামারিটি প্রতিটি পদক্ষেপে বিশ্বকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে যাচ্ছে। গোটা বিশ্বের কাছেই এটি একটি অদৃশ্য শত্রু। যার দ্রুত পরিবর্তনশীল। আর বহু গুণে রয়েছে। 'দেশ করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। একাধিক বাধা অতিক্রম করছে।' করোনা মহামারির বিরুদ্ধে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারত জিতবে। যতক্ষণ জয় অধরা থাকবে ততক্ষণ মহামারির বিরুদ্ধে ভারত লড়াই চালিয়ে যাবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, দেশের চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, বিজ্ঞানী, সশস্ত্র বাহিনী করোনা মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছে। দেশবাসীকে কিছু সময় যন্ত্রণা ভোগ করতে হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আর তারপরই প্রধানমন্ত্রী বলেন তাঁদের দেশবাসীর কষ্ট তিনিও অনুভব করছেন। দেশের মানুষকে টিকা নেওয়ার কথাও বলেন তিনি। তিনি বলেছেন পালা এলে যাতে প্রত্যেকে টিকা নেয় সেদিকে নজররাখা জরুরি। এখনও পর্যন্ত এই দেশে ১৮ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে।  তবে টিকা নেওয়ার পরেও করোনা যুদ্ধ চলবে। টিকা নেওয়ার পরেও প্রত্যেক ব্যক্তিকে মাস্ক পরতে হবে। মানতে হবে নূন্যতম দূরত্ববিধি। মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য চিকিৎসা সামগ্রীর দেশীয় উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি বিদেশ থেকেও ওষুধ ও টিকা আমদানি করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।