আবারও বিতর্কিত বার্তা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী হর্ষ বর্ধনের। এবার তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে করোনা আক্রান্তদের মানসিক চাপ কমাতে ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দেন। হিন্দিতে টুইট করে তিনি জানিয়েছেন, আক্রান্তদের কোভিড সম্পর্কিত চাপ কমাতে ৭০ শতাংশ কোকো যুক্ত চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। একই সঙ্গে রোগপ্রতিরোধ শক্তি বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় খাবার খাওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ফল, শাক সবজির পাশাপাশি করোনা আক্রান্তদের দিনে একবার দুধ খেতেও বলেছেন তিনি। একই সঙ্গে আখরোট, আমন্ড, অলিভ ওয়েল, মুরগির মাংস, মাছ, ডিম ও পনির খাওয়ার কতাও বলেছেন। 

তবে নেটিজেনরা তাঁর ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। কারণ বর্তমানে দেশ প্রবল সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। অক্সিজেন থেকে ভ্যাকসিন- যোগানের তুলনায় চাহিদা বেড়েছে অনেকটাই। এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর ডার্ক চকোলেটের পরামর্শ ভালোভাবে নেননি নেটিজেনরা। তবে এটাই প্রথম নয়, এর আগেও স্বাস্থ্য মন্ত্রীর বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। মার্চ মাসের আগেই করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গে আছড়ে পড়েছিল দেশে। ক্রমেই বাড়ছিল আক্রান্তের সংখ্যা। আর সেই সময়ই স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছিলেন দেশে করোনামাহামারি শেষ হয়েছে। সেই সময় বশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকদের একাংশ তাঁর সমালোচনায় সরব হয়েছিল। তাঁদের কথায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী করোনা যুদ্ধে যদি ইতি টানেন তাহলে দেশের সাধারণ নাগরিকরাও বিষয়টিকে গুরুত্ব দেবেন না। তাঁরাও করোনা সংক্রাম্ত প্রোটোকল মেনে চলতে চাইবেন না। 

বর্তমানে দেশে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। দৈনিক আক্রান্তের গড় ৪ লক্ষের গন্ডি পার করেছে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। উত্তর প্রদেশ বিহার আর মধ্য প্রদেশের নদীতে ভাসছে লাস। অনেকেই মনে করছেন কোভিড আক্রান্তদের দেহ ভাসিয়ে দেওয়া হচ্ছে জলে। যদিও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিদেশ থেকে আনা হচ্ছে অক্সিজেন, টিকা, সহ একাধিক করোনা চিকিৎসার সরঞ্জাম। আনা হচ্ছে ভ্যাকসিনও।