প্রথম দফার ভোট শুরুর কয়েক ঘণ্টার নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়াকে কটাক্ষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার তাতেই সুর চড়িয়ে বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, পরাজয় নিশ্চিত আর সেই কারণেই প্রবল চাপে রয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমো। 

মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনে সত্যাগ্রহে সামিল হয়ে জেলে গিয়েছিলেন, ঢাকায় বললেন নরেন্দ্র মোদী ...

নন্দীগ্রামের বিজেপি নেতা প্রলয় পালকে ফোন মমতার, বিস্ফোরক অডিও ক্লিপ ফাঁস, কী বলেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিম...

শনিবার রাজ্যের প্রথম দফার ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এবার সকাল বেলা দশটা নাগাদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচন কমিশনকে কটাক্ষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দেন। তিনি বলেন, কী হয়েছে নির্বাচন কমিশনের? তারপরই তিনি বলেন আপনি কী ভাবে ব্যাখ্যা করবেন, যে মাত্র ৫ মিনিটের ব্যবধানে ভোটদানের হার অর্ধেক হয়ে গেল। পরে তিনি লেখেন শকিং, অর্থাৎ মর্মাহত। সঙ্গে কত শতাংশ ভোট পড়েছে তার একটি হিসেবও তুলে ধরেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে রাজ্যের নির্বাচন কমিশনের সিইওকে বিষয়টি খতিয়ে দেখারও আবেদন জানিয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ পুরো মেদিনীপুর জেলায় নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের ভোটগ্রহণ পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে প্রায় অর্ধেক হয়ে গেছে। দলের পক্ষ থেকে পূর্ণ আপডেটও চাওয়া হয়েছে।  

মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় যখন এই অভিযোগ করছেন তখন তাঁর প্রতিপক্ষ বিজেপির রাজ্যসভাপতি নির্বাতচন কমিশনের ওপর সম্পূর্ণ আস্থা রেখে সংবাদ সংস্থা এএনআইকে  জানিয়েছেন, এই ভোট তৃণমূল বুঝতে পেরেছে তাদের পরাজয় নিশ্চিত। আর সেই কারণেই রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এজাতীয় অভিযোগ করা হচ্ছে। তিনি বলেন তৃণমূলের পাশাপাশি দলের সুপ্রিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও চাপে রয়েছেন। 

এদিন ভোট গ্রহণের শুরু থেকেই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে একাধিক জায়গায় সংঘাতে জড়িয়ে পড়েছে বিজেপি।  বাদ যায়নি বিরোধী পক্ষ বামেরাও। সবমিলিয়ে প্রথম দফা ভোট গ্রহণে উত্তাপ রয়েছে যথেষ্ট। গতকালই কমিশনের গাড়িলক্ষ্য করে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। এই পরিস্থিতিতে শান্তিপূর্ণ ভোটের দাবিতে রাজ্যের দায়িত্বে থাকা ভোট কর্তাদের সঙ্গে তৃণমূলের নেতারা দেখা করার পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছেন। এদিন রাজ্যের পাঁচটি জেলায় ৩০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হচ্ছে।