১ এপ্রিল রাজ্যের দ্বিতীয় দফার ভোট। সকলের নজরে নন্দীগ্রাম। এদিন মোট ৩০ টি আসনে হবে ভাগ্য নির্ধারণ। যার মধ্যে রয়েছে দুই স্টার প্রার্থী, খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বিপরীতে রয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। প্রথম দফার ভোটের আগেই দেখা গিয়েছিল একাধিক অঞ্চলে রাতভোর অশান্ত পরিবেশ। বোমাবাজি থেকে শুরু করে খুন তালিকা থেকে কিছুই বাদ পড়েনি। দ্বিতীয় দফার ভোটের ঠিক আগের রাতেও ছবিটা একই থাকল। 

আরও পড়ুন- 'রেকর্ড সংখ্যায় ভোট দান করুন', আজ দ্বিতীয় দফার ভোটে টুইট বার্তা মোদীর 

প্রথম দফার মতো দ্বিতীয় দফার ভোট শুরুর আগেই কেশপুরে খুনের ঘটনা এলো সামনে। মৃত্যু হল এক তৃণমূল কর্মীর। মৃত ব্যক্তির নাম উত্তম দোলাই, বয়স ৪০, বাড়ি কেশপুরের 4 নম্বর অঞ্চলের হরিহরচক এলাকায়। তৃণমূলের দাবি-বুধবার রাতে তিনি নিজের বাড়িতে বসে যখন খাওয়াদাওয়া করছিলেন সেই সময়ে হঠাৎই বিজেপির লোকজন তার ওপর হামলা চালায়। বচসার মাঝেই ছুরি নিয়ে পেটে আঘাত করা হয়েছিল তার।

আরও পড়ুন- নজরে নন্দীগ্রাম, সকাল ৭ টায় ভোট দেবেন শুভেন্দু, আজ ভাগ্য নির্ধারণ মমতার 

 রাতেই রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা উত্তমকে প্রথমে কেশপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ও পরে মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। ঘটনার জেরে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে ওই এলাকায়। উল্লেখ্য, প্রথম দফার ভোট শুরুর দিন পশ্চিম মেদিনীপুরে কেশিয়াড়িতে এক বিজেপি কর্মী খুন হওয়ার ছবি সামনে এসেছিল। যাকে খুন করে ফেলে রেখে যাওয়া হয়, দ্বিতীয় দফাতেও একই ছবি ধরা পড়ল কেশপুরে।