আইকোরকাণ্ডে সিবিআই-র হাজিরা প্রসঙ্গে জল ঢাললেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সোমবার তাঁকে যেতে বলেনি সিবিআই এমনটাই দাবি করলেন শিক্ষামন্ত্রী।  উল্টে  সিবিআই-র হাজিরার দিনেই ঠাকুরপুকুরে  পঞ্চানন মন্দিরে ঘটা করে পুজো দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 

 

আরও পড়ুন, সারদাকাণ্ডে ED-র দফতরে শিল্পী শুভাপ্রসন্ন, ভোটের মুখে নয়া তথ্যের খোঁজে তদন্তকারীর দল 

 

তিনি এদিন বলেন, 'আমি ২০০১ সাল থেকে যখনই প্রচার শুরু করি তখনই ঠাকুরপুকুরে এই পঞ্চানন মন্দির থেকে আমি পুজো দিয়ে প্রচার শুরু করি। এরপর মাজার এবং পরে চন্ডী মন্দির পুজো দেব', এমনটাই জানালেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।আইকোর মামলায় সিবিআইয়ের হাজিরা নিয়ে তিনি বললেন,' আজকে আমাকে যেতে বলেনি। আমার কিছু নেই । আমি এটা নিয়ে কোন চিন্তাও করি না। আমি এত বড় চাকরি ছেড়ে চলে এলাম। আমি সারা জীবন সৎ ছিলাম, আছি, সৎ ভাবে থাকবো। সুতরাং আমার এসব নিয়ে এত চিন্তা নেই। নির্বাচনের মধ্যে এই ধরনের চিঠি আমাকে বিব্রত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমি এর মোকাবেলা করব আইনত ভাবে। এটা নিয়ে আমি এত চিন্তিত নই। 

 

আরও পড়ুন, নন্দীগ্রামে মমতার আহত হওয়ার ঘটনার কোপে ৩ আধিকারিক, পুলিশ সুপার-জেলাশাসককে সরালো কমিশন  


উল্লেখ্য ওদিকে বিজেপির প্রার্থী তালিকায় নাম না ওঠায় ভীষণ ক্ষোভ নিয়ে দল ছেড়েছেন শোভন-বৈশাখী।  শোভন-বৈশাখীর সিদ্ধান্ত নিয়ে পার্থ  বললেন,' এটা তাঁদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। তবে এবারে জিতব কিনা সেটা মানুষই ঠিক করবে। জনতা জনার্দন। আমি বাংলার মানুষের হয়ে কাজ করেছি বেহালার মানুষের হয়ে কাজ করেছি মহিলাদের জন্য কাজ করেছি। মানুষ উন্নয়নের সঙ্গে থাকবে। কিন্তু একটাই দুঃখ মেট্রো রেল চালু হল না। এটা কেন্দ্রীয় সরকারি গাফিলতি। এটা মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় থাকলে মেট্রো রেল চালু করতো।'