অসমে নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত থাকা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কংগ্রেসের জি -২৩ সম্মেলন থেকে উঠে আসা প্রশ্ন নিয়ে সরাসরি কোনও মন্তব্য করেননি। তবে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীর মন্তব্যের সঙ্গে তিনি এক মত। অসমে বদরুদ্দিন আজমলের অল ইন্ডিয়া ইউনাউটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সঙ্গে যেমন হাত মিলিয়েছে কংগ্রেস। তেমনই এই রাজ্যে কংগ্রেস ও বামেরা হাত মিলিয়েছে আব্বাস সিদ্দিকির ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের সঙ্গে। যা নিয়ে কংগ্রেসের জি ২৩ সম্মেলনে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন রাজ্যের দায়িত্বে থাকা অধীর চৌধুরী। তারই রেশ টেনে প্রিয়াঙ্কা এদিন দিন এই বিষয় নিয়ে তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না। কিন্তু বিষয়টি তিনি অধীর চৌধুরীর সঙ্গে যে সহমত পোষন করেছেন তা জানাতে ভোলেননি কংগ্রেস নেত্রী। গতকালই অধীর চৌধুরী জানিয়েছিলেন, নির্বাচন নিয়ে যা যা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তাতে সমর্থন রয়েছে দলীয় শীর্ষ নেতৃত্বের। 

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে আব্বাসের হাত ধরা প্রসঙ্গে যা বলার তা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী বলেছেন। আর অসমে যে লড়াই হচ্ছে তা অসমবাসীদের নিজস্ব লড়াই। তিনি আরও বলেন, কংগ্রেসের সঙ্গে কোনও দিনই জোট শরিকদের আদর্শ ১০০ শতাংশ মেলে না। একই সঙ্গে তিনি কংগ্রেসের সাংগঠনিক চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গেও মুখ খুলেছেন। তিনি বলেন প্রতিটি রাজ্যেই কংগ্রেস নেতাদের প্রচুর পরিশ্রম করতে হচ্ছে। তাতে সাফল্য আসতে পারে আবার নাও আসতে পারে। তিনি আরও বলেন সংগঠন তৈরির কাজে অব্যাহত থাকবে কংগ্রেসে। একটি ভালো সংগঠন তৈরির দিকেই মনোনিবেশ করবে কংগ্রেস। তেমনই জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। একই সঙ্গে তিনি দেশের ভোটারদেরও বার্তা দিয়েছেন। বলেছেন ভোট দেওয়ার আগে ভোটারদের চিন্তা করে দেখতে বলেছেন, কাকে তাঁরা ভোট দিচ্ছেন, যাঁদের ভোট দিচ্ছেন তাঁরা কী কী প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আর আগের দেওয়া প্রতিশ্রুতি কতটা পালন করেছেন।    

অসমের ভোট প্রচারে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন তাঁরা ক্ষমতায় এলে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন বাতিল করার জন্য অন্য একটি আইন নিয়ে আসবে।  প্রতি পরিবারের ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিনামূল্যে দেবে। বাড়ন হবে দৈনিক মজুরি। সমস্ত গৃহবধূকে মাসে ২ হাজার টাকা সহায়তা করা হবে। এই পাঁচটি প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন এগুলি পুরণ করা হবে। এর গ্যারান্টি দিচ্ছেন তিনি। তিনি আরও বলেনন এটি বিজেপি ও কংগ্রেসের লড়াই নয়। এটি অমসবাসীদের বেঁচে থাকার লড়াই।